Beta

সাতকানিয়ায় নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ছুটছে লাখো মানুষ

১৪ জুলাই ২০১৯, ২৩:২৭

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় পরিবারের সদস্য ও গবাদি পশু নিয়ে বন্যার পানি ডিঙিয়ে কেরানীহাটের দিকে ছুটে আসছেন লোকজন। ছবিটি আজ রোববার তোলা। ছবি : এনটিভি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় টানা পাঁচ দিন পানিবন্দি থাকা মানুষগুলো আর কোনো অবস্থাতেই নিজ বাড়ি কিংবা বাড়ির ছাদে থাকতে পারছে না। বন্যার পানি এতই বেড়ে গেছে যে তারা এখন নিরাপদ আশ্রয় খোঁজে ছুটছেন। পরিবারের নারী ও শিশু এবং গবাদি পশু নিয়ে সবাই বন্যার পানি ডিঙিয়ে কেরানীহাটের দিকে ছুটে আসছেন।

ভোর ৫টা থেকে শুরু হওয়া ছুটে আসা মানুষের স্রোত যেন শেষ হচ্ছে না। এখনো হাজারো মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ছুটতে দেখা যাচ্ছে।

গত শনিবার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন ত্রাণ বিতরণ করে। কিন্তু আজ রোববার পরিস্থিতি অনেক ভিন্ন। কারণ এখানে এখন ত্রাণ বিতরণ করার অবস্থাও নেই। উপজেলা পরিষদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সাতকানিয়া সরকারি কলেজ, অলি আহমদ বীর বিক্রম কলেজ, জাফর আহমেদ চৌধুরী ডিগ্রি কলেজ, সাতকানিয়া আদর্শ মহিলা কলেজসহ সব কটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান বন্যার পানিতে সয়লাব হয়ে গেছে।

ফলে যারা ত্রাণ বিতরণ করবেন তারাও পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। পানির কারণে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট খুলতে পারেননি। নিরাপদ আশ্রয়ে দিকে ছুটে আসা মানুষগুলো সিটি সেন্টারসহ ভবনগুলোর ছাদে আশ্রয় নিচ্ছেন। আবার অনেকে নিকটাত্মীদের বাড়িতে আশ্রয় নিচ্ছেন।

কেরানীহাট মা-শিশু জেনারেল হসপিটালের নির্বাহী চেয়ারম্যান ওসমান আলী বলেন, আমরা বেশ কয়েকদিন ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়েছি। এখন আরো বেশি ত্রাণ বিতরণ করা দরকার।

সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, বন্যার শুরু থেকে আমিসহ বেশির ভাগ জনপ্রতিনিধি সাতকানিয়া অবস্থান করে বন্যায় দুর্গত মানুষদের পাশে থাকার চেষ্টা করছি। আমরা বন্যার্ত মানুষের মধ্যে চাল, ডাল ও শুকনো খাবার সরবরাহ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

Advertisement