Beta

সায়মার বাবার আকুতি

কুরুচিপূর্ণ মানুষের হাত থেকে নিজের মেয়েকে রক্ষা করুন

০৭ জুলাই ২০১৯, ২২:০৬ | আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ২২:১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিহত সায়মার বাবা আবদুস সালাম। মেয়ের কথা বলতে গিয়ে বারবার কান্নায় ভেঙে পড়েন। ছবি : সংগৃহীত

ছোট্ট শিশু সামিয়া আফরিন সায়মার (৭) বাবা আবদুস সালাম কাঁদলেন। বললেন, ‘আমি পারি নাই আমার মেয়েকে রক্ষা করতে।’ তিনি বলেন, ‘দেশবাসীর জন্য আমি এটা বলব, আপনাদের যাদের মেয়ে আছে, যাদের সন্তান আছে, এ রকম কুরুচিপূর্ণ, এ রকম পশুসুলভ আচরণের ছেলেদের থেকে কীভাবে দূরে রাখা যায়— এটা ভেবে দেখবেন, তাদের রক্ষা করার চেষ্টা করবেন।’

আজ রোববার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এভাবেই বলেন আবদুস সালাম।

শিশু সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যায় মূল অভিযুক্ত ব্যক্তি হারুন অর রশিদকে আজ কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। তারপর তাঁকে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের সামনে হাজির করা হয়। সেখানে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার মো. আবদুল বাতেন জানান, জিজ্ঞাসাবাদে হারুন সায়মাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তিনি বলেন, ‘হারুন মেয়েটার সঙ্গে নির্দয়ভাবে পশুর মতো আচরণ করে।’

গত শুক্রবার রাত ৯টার দিকে রাজধানীর ওয়ারীর বনগ্রাম এলাকার নয়তলার ফ্ল্যাট থেকে শিশু সায়মার লাশ উদ্ধার করা হয়।  

আবদুস সালাম কথা বলার সময় বারবার কান্নায় ভেঙে পড়েন। তিনি বলেন, ‘আমার মূল দাবি, সাংবাদিক ভাইদের মাধ্যমে বলতে চাই- আমার মেয়েকে দুই রকম নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তার ফাঁসিটা যেন অতি দ্রুততম সময়ে কার্যকর হয়, অন্তত ছয় মাসের মধ্যে যেন কার্যকর হয়। আমি এর জোর দাবি জানাচ্ছি।’

সালাম বলেন, ‘আমার মেয়ে আমার স্ত্রীর কাছে বলে গেছে ১০ মিনিটের জন্য আমি খেলে এসে তোমাকে পড়াগুলা দেব। কিন্তু ১০ মিনিট গেল। আমি নামাজ পড়ে আসলাম আর পাইলাম না। সাড়ে ৬টা থেকে সাড়ে ৭টার মধ্যে আমার সুন্দর ফুটফুটে মেয়েটা… আমি ভাবতে পারছি না।’

সায়মার বাবা আরো বলেন, ‘আমার স্ত্রী এখন পর্যন্ত একটু পানিও মুখে দিতে পারছে না।’ তিনি আরো বলেন, ‘এ ঘটনার পর আমার পুরো পরিবার বিধ্বস্ত। যার জীবনে এমন ঘটনা ঘটে সেই শুধু এর জ্বালা-যন্ত্রণা বুঝতে পারে।’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে সালাম বলেন, ‘এই ঘটনা আজকের পর যেন স্তিমিত না হয়ে যায়। আজকের মতোই এ ঘটনা নিয়ে লেখালেখি করবেন। সচেতন থাকবেন- যাতে ঘটনাটি ধামাচাপা না পড়ে যায়। বাংলাদেশে অনেক ঘটনা রয়েছে যেগুলো প্রথমে আলোড়ন সৃষ্টি করে, পরে ধামাচাপা পড়ে যায়। গরিব বাবা হিসেবে এটাই আমার দাবি।’

Advertisement