Beta

অপারেশনের সময় রোগীর মৃত্যু, স্বজনদের ভাঙচুর

০৫ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৫

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা শহরের কমলপুর এলাকায় ট্রমা অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালে রোগীর মৃত্যুর পর স্বজনরা ভাঙচুর চালায়। ছবি : এনটিভি

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় জুয়েল (৩৪) নামের এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভাঙচুর চালিয়েছেন স্বজনরা। পরে পুলিশ এ ঘটনায় এক চিকিৎসককে আটক করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা শহরের কমলপুর এলাকায় ট্রমা অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। জুয়েল শহরের দক্ষিণ চণ্ডীবেড় এলাকার বাসিন্দা। তিনি পোলট্রি ব্যাবসার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

জুয়েলের স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, কয়েক বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় জুয়েলের ডান হাত ভেঙে যায়। সে সময় তিনি ট্রমা অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালের অর্থোপেডিক সার্জন ডা. কামরুজ্জামান আজাদের চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন। কিন্তু সেই সময় থেকেই জুয়েলের হাতে রড ঢোকানো ছিল।

গতকাল রাতে হাতের সেই রড খুলতে অপারেশনের জন্য ডা. কামরুজ্জামান আজাদের কাছে যান জুয়েল। অপারেশন শুরুর পরপরই তিনি মারা যান। এ সময় হাসপাতালের অন্য চিকিৎসক ও নার্সরা গা-ঢাকা দেন।

পরবর্তী সময়ে বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজনকে সঙ্গে করে জুয়েলের স্বজনরা হাসপাতাল অবরোধ করে ভাঙচুর চালায় এবং চিকিৎসক কামরুজ্জামানকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

পরে খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুজ্জামানের উপস্থিতিতে পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত জনতাকে সরিয়ে দেয়। এ সময় চিকিৎসক কামরুজ্জামানকে আটক করা হয় বলেও জানান ভৈরব সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) রেজওয়ান দিপু।

এদিকে, আজ শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য জুয়েলের লাশ কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement