Beta

নারায়ণগঞ্জে ২০ স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, দুই শিক্ষকের নামে দুই মামলা

২৯ জুন ২০১৯, ১১:১৫

শিশু ছাত্রীদের ধর্ষণ ও এতে সহযোগিতার অভিযোগে গ্রেপ্তার নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের স্কুলশিক্ষক আশরাফুল আরিফ ও প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার। পুরোনো ছবি : এনটিভি

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ২০ স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের ঘটনায় আলাদা দুটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় প্রথম মামলাটি করা হয় সব নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে। দ্বিতীয় মামলাটি করে র‍্যাব বাদী হয়ে। মামলার আসামি হলেন গ্রেপ্তার হওয়া দুই শিক্ষক আশরাফুল আরিফ ও প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার।

অভিভাবকদের করা মামলাটি হয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং র‍্যাবের করা মামলাটি হয়েছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে। মামলা দায়েরের পর আসামি আশরাফুল আরিফ ও রফিকুল ইসলামকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‍্যাব ১১-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন জানান, গ্রেপ্তার হওয়া আসামি আশরাফুল আরিফের মোবাইল ফোন, ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ডিভাইস জব্দ করে পাঁচ বছরে পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ২০ জনের বেশি ছাত্রীকে ধর্ষণ এবং যৌন নির্যাতনের প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসায় গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষক দোষ স্বীকার করেছেন। শনিবার আদালতে হাজির করে আসামিদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

জনতার বিক্ষোভের মুখে গত বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার একটি স্কুলের সহকারী শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে আদমজী নগর র‍্যাব-১১ প্রধান কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছিল।

Advertisement