Beta

কামাল হোসেন গোপনে আ.লীগের পক্ষে কাজ করেছেন : নাসিম

২৫ জুন ২০১৯, ২২:৩৩ | আপডেট: ২৬ জুন ২০১৯, ০০:০৬

নিজস্ব প্রতিবেদক
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নেন। ছবি : সংগৃহীত

বর্তমান একাদশ জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের বিজয়কে গণফোরামের সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনের উপহার বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেছেন, ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্ব মেনে বিএনপি ভুল করেছে। তিনি বিএনপি নয়, বরং গোপনে আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেছেন।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এসব কথা বলেন। তিনি ঋণ খেলাপিদের কোনো ছাড় না দেওয়ার দাবি জানান।

১৪ দলীয় জোটের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম আজ জাতীয় সংসদে বলেন, ‘বিএনপিতে এত দৈন্যতা দেখা গেছে, কামাল হোসেনের মতো একজন ব্যর্থ, চক্রান্তে ব্যর্থ আওয়ামী লীগের মধ্যে, সেই কামাল হোসেনকে ভাড়া করে উনারা সামনে দাঁড় করালেন, মাননীয় স্পিকার। বলেন, এঁরা জিততে পারবে? জিততে পারবে না মাননীয় স্পিকার। এমনকি কী করল জানেন? (কামাল হোসেন) আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করে মাঠ খালি করে দিল। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিয়ে দিলাম। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিয়ে দিলাম, মাননীয় স্পিকার। এই সংসদ হচ্ছে ভাড়াটিয়া নেতা কামাল হোসেনের উপহার। ওরা ভাড়া করল ওদের জন্য। ওরা কাজ করল, কামাল হোসেন গোপনে আমাদের পক্ষে মাননীয় স্পিকার, কামাল হোসেন আমাদের পক্ষে কাজ করল। সমস্ত মাঠ খালি হয়ে গেল, মাননীয় স্পিকার। আমার নিজের এলাকা পর্যন্ত খুঁজে পাই না মাননীয় স্পিকার।’

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে বক্তব্য দেন চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হারুন অর রশিদ। ছবি : সংগৃহীত

অন্যদিকে সংসদে বক্তৃতায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হারুন অর রশিদ বলেন, আজকে সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান মন্ত্রীরা যখন উপহাস করে বলেন, বিএনপি রাস্তায় দাঁড়াতে পারে না। আজকে বিএনপির কত নেতাকর্মী গুমের শিকার হয়েছে, অপহরণের শিকার হয়েছে, ক্রসফায়ারের শিকার হয়েছে, বিনা বিচারে, বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে, এর তথ্য হিসাব আপনি চাইলে আমি আপনার কাছে পৌঁছে দিব।

হারুন অর রশিদ বলেন, আজকে বিএনপির মহাসচিবের নামে ৮৪টি মামলা। আজকে অবাক লাগে মাননীয় স্পিকার, আজকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যখন বলেন, গায়েবি মামলা বলে কিছু নাই।

Advertisement