Beta

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ‘ধর্ষণ’, নৌপুলিশ আটক

২২ জুন ২০১৯, ০৯:৩৫ | আপডেট: ২২ জুন ২০১৯, ১১:১৮

বাগেরহাটের রামপাল উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে মুত্তাকীন বিল্লাহ নামে এক নৌপুলিশ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার রাতে মোংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলের নৌপুলিশ ফাঁড়ির কনস্টেবল মুত্তাকীনকে আটক করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে রামপাল থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করা হয়েছে।

রামপাল থানা পুলিশ ও অভিযোগকারী তরুণীর পরিবার জানায়, কিছুদিন আগে এসএসসি পাস করা ওই তরুণীকে রাস্তাঘাটে যাওয়া-আসার পথে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতেন কনস্টেবল মুত্তাকীন। একপর্যায়ে তিনি মেয়েটিকে বিয়ের প্রস্তাবও দেন। বিয়েতে রাজি না হলে তরুণীকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন মুত্তাকীন।

পরবর্তী সময়ে কৌশলে ওই তরুণীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপন করেন ওই পুলিশ সদস্য। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত দুই মাস ধরে মুত্তাকীন ধর্ষণ করে আসছিলেন বলে অভিযোগ করেন তরুণী।

গত বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে ওই তরুণীর বাড়ি থেকে মুত্তাকীনকে আটক করে এলাকাবাসী। পরে তাঁকে স্থানীয় ভোজপাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে চেয়ারম্যান রামপাল থানায় বিষয়টি অবহিত করেন এবং মুত্তাকীনকে থানায় হস্তান্তর করেন। পরে খবর পেয়ে নৌপুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) মো. জিয়া উদ্দিন আহমেদ রামপাল থানায় যান।

রামপাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ লুৎফর রহমান বলেন, ‘নৌপুলিশ সদস্য মুত্তাকীনকে আমরা আটক করেছি। এ ব্যাপারে মামলা হচ্ছে।’ 

অভিযোগকারী তরুণীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জবানবন্দির জন্য পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

Advertisement