Beta

ভালুকায় পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে শ্রমিক হত্যার অভিযোগ!

১৬ জুন ২০১৯, ২১:১৫ | আপডেট: ১৬ জুন ২০১৯, ২১:৩৬

ময়মনসিংহের ভালুকা শিল্পাঞ্চলে একটি স্পিনিং মিলে পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে শ্রমিক হত্যার অভিযোগ ওঠেছে। নিহত ওই শ্রমিকের নাম পারভেজ। তিনি ভালুকা উপজেলার মেদুয়ারি ইউনিয়নের বাসিন্দা জালাল উদ্দিনের ছেলে। তিনি উপজেলার ভরাডোবা এলাকার গ্লোরি স্পিনিং মিলে শ্রমিকের কাজ করতেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নথিতে, ভর্তির সময় টিকেটে পারভেজকে শারীরিক নির্যাতন ও পেটে বাতাস ঢুকানোর কথা উল্লেখ করা হয়। মৃত্যু সনদে পায়ুপথে সিগময়েড কোলন ছিদ্র হয়ে মল ছড়িয়ে পড়ায় দ্রুত রক্তে ইনফেকশন (সেপটিসেমিয়া) ঘটে পারভেজের মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

কিন্তু এ বিষয়ে হত্যা মামলা হয়নি। নিহতের বোন রহিমা ভালুকা থানায় একটি অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা করেছেন বলে জানিয়েছেন ভালুকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুদ্দিন। তিনি জানান, একই মিলে শ্রমিকের কাজ করেন পারভেজের দুই বোন। তাদের একজন রহিমা। অন্যজনের নাম জানা যায়নি।

বিষয়টি পুলিশ কেস হওয়ায় একজন চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ১০০ সিসির অধিক বেগে পায়ুপথে বাতাস ঢুকানোর ফলে কোলনে ছিদ্র হয়েছে। হাসপাতালের নথি পর্যালোচনা করে সেটাই বোঝা যাচ্ছে।      

পারভেজের মৃত্যুর বিষয়ে ওসি মাইনুদ্দিন বলেন, গত শুক্রবার ১৪ জুন দুপুর দেড়টার দিকে কাজ করতে গিয়ে শরীরে জড়ানো তুলা ব্লোয়ার মেশিন দিয়ে পরিষ্কার করার সময় মুখ দিয়ে বাতাস ঢুকে আহত হন পারভেজ। পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতে অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা। ১৫ জুন ভোর ৬টার দিকে মারা যান পারভেজ। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ মর্গে তাঁর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

ওসি মাইনুদ্দিনকে হাসপাতালের রেকর্ডের বিষয়ে দৃষ্টি  আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি তদন্তের পর্যায়ে রয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে পায়ুপথে বাতাস ঢুকানোর প্রমাণ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ভালুকা শিল্পাঞ্চল পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার নুরন্নবী জানান, ময়মনসিংহের শ্রমিক নেতা তোফাজ্জল হোসেন তাঁকে ফোনে পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে শ্রমিক হত্যার কথা জানিয়েছেন। তবে বিষয়টি তদন্তের এখতিয়ার ভালুকা থানা পুলিশের। যা করার তারাই করবেন।

বিষয়টি জানতে গ্লোরি স্পিনিং মিলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মোখলেছুর রহমানকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

এদিকে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের ময়মনসিংহ শাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেনের দাবি, ভর্তি টিকেট ও মৃত্যু সনদে পারভেজের পায়ুপথে বাতাস ঢোকানোর কথা স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে। তাঁর দাবি, পায়ুপথে বাতাস ঢুকানোর ফলেই পারভেজের মৃত্যু হয়েছে। তিনি পারভেজের মৃত্যুর বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিচার দাবি করেছেন।

Advertisement