Beta

স্বেচ্ছাচারিতা ও বেআইনি কর্মকাণ্ডের অভিযোগ

নিয়োগ বাতিলে ইফা ডিজিকে শোকজ

১১ জুন ২০১৯, ১৭:৫২ | আপডেট: ১১ জুন ২০১৯, ১৭:৫৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
ইফার ডিজি সামীম মোহাম্মদ আফজাল। ছবি : সংগৃহীত

দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যবহার ও বেআইনি কর্মকাণ্ডসহ নানা অনিয়মের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ববস্থা গ্রহণ ও ‘চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ কেন বাতিল করা হবে না’ মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

ধর্মমন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব (সংস্থা) মো. জিয়া উদ্দিন ভূঞা স্বাক্ষরিত এ নোটিশে সামীম আফজালকে সাত দিন সময় দেওয়া হয়েছে। গত রোববার এ নোটিশ দেওয়া হয়।

সাবেক জেলা জজ সামীম মোহাম্মদ আফজাল ২০০৯ সালে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বর তার চাকরির মেয়াদ শেষ হলে আরো এক বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পান তিনি। এরপর ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর আরো দুই বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হয় তাঁকে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত তাঁর চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের মেয়াদ রয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্র জানিয়েছে, ইসলামিক ফাউন্ডেশনে যোগ দিয়েই তিনি একের পর বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দেশব্যাপী আলোচিত ও সমালোচিত হন।

ধর্মমন্ত্রণালয়ের শোকজ নোটিশে বলা হয়েছে, সামীম মোহাম্মদ আফজালের বিরুদ্ধে এর আগে নিয়োগ, পদোন্নতি, ক্রয় কার্যক্রমসহ নানাবিধ অভিযোগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারিত হয়। সম্প্রতি দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে গত ৭ মে তাঁর বিরুদ্ধে প্রাপ্ত সুনির্দিষ্ট অভিযোগ তদন্তে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়।

নোটিশে আরো বলা হয়েছে, সামীম মোহাম্মদ আফজাল ইসলামিক ফাউন্ডেশনে ক্ষমতা বহির্ভূত, বেআইনি, অসৎ উদ্দেশ্য প্রণোদিত, স্বেচ্ছাচারিতা ও ক্ষমতা অপব্যবহারের কারণে কেন তাঁর চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিল করতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে না, তা লিখিতভাবে পত্র প্রাপ্তির সাত কার্যদিবসের মধ্যে জানাতে সামীম মোহাম্মদ আফজালকে বলা হয়েছে।

সামীম মোহাম্মদ আফজালের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিলে নোটিশ প্রদানের বিষয়ে জানতে চাইলে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘সামীম মোহাম্মদ আফজালের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার, বেআইনি কর্মকাণ্ড পরিচালনা, দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতাসহ অনেকগুলো অভিযোগ রয়েছে। তার সব কর্মকাণ্ডই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের স্বার্থবিরোধী বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। এ কারণেই নিয়োগ বাতিলের বিষয়ে তার কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে। তার লিখিত ব্যাখ্যা পাওয়ার পরই পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নোটিশের বিষয়ে জানতে সামীম মোহাম্মদ আফজালের মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করা হয়। তবে তিনি ফোন কেটে দেন।

Advertisement