Beta

আয়মন নামে একটা নদী ছিল

২৭ মে ২০১৯, ২২:১৩

দখলে-দূষণে হারিয়ে গেছে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার আয়মন নদী। ছবি : এনটিভি

কাগজে কলমে ময়মনসিংহ জেলায় প্রায় ৫৯টি নদ-নদী রয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ৩০টি নদী বিলীনের পথে। সরকারিভাবে নদ-নদী তদারককারীদের চরম অবহেলা ও উদাসিনতায় সরকারি স্থাপনা তৈরি করাসহ প্রভাবশালী ও স্থানীয় অধিবাসীদের দখলে চলে গেছে এসব নদ-নদী।

এমন একটি নদীর নাম আয়মন নদী, যার অবস্থান মুক্তাগাছা উপজেলায়। নদীটি মুক্তাগাছা পৌরসভা, মানকোন, কুমারগাতা, বড়গ্রাম ও খেরুয়াজানি ইউনিয়নের ওপর দিয়ে প্রবাহিত। কাগজে-কলমে নদীটির দৈর্ঘ্য ৩২.৭৫ কিলোমিটার। প্রস্থ ৭৫ ফুট, গভীরতা প্রায় ১৫ ফুট। নদীর ওপর ১২টি কালভার্ট, আটটি ব্রিজ ও দুটি স্লুইসগেট বিদ্যমান। নদীটির প্রায় ২২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে দুইপাড় ও মাঝখানে দখল হয়ে গেছে। নদীর মাঝখান দিয়ে পাড় বেঁধে অনেকেই নদীকে বানিয়েছে ব্যক্তিগত পুকুর ও চাষাবাদের  জমি। নদীতে মাটি ভরাট করে তৈরি করা হয়েছে ছোট বড় ঘরবাড়ি, দোকানপাট, বহুতল পাকাবাড়ি। ফলে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় নদীর অস্তিত্বই নেই।

নদীর ওপর আবাসিক ঘরবাড়ি তৈরি হওয়ায় নদীর কোনো চিহ্নই খুঁজে পাওয়া যায় না। নদীটি বর্তমানে খণ্ড খণ্ড ডোবায় পরিণত হয়েছে। পাশাপাশি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অফিসের জন্য নির্মিত পাকা সীমানা প্রাচীর তৈরি করা হয়েছে প্রায় দেড় কিলোমিটার এলাকায়। প্রাচীরটির অবস্থান নদীতে হওয়ায় মাটি ভরাটের ফলে নদীর গতিপথ রুদ্ধ ও পানি প্রবাহে মারাত্মক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে।

১৯৬০ সালে আয়মন নদীর ওপর দিয়ে তৎকালীন জমিদাররা পণ্য পরিবহন ও নিজেরা জলযানে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করতেন। কালের বিবর্তনে অবহেলা আর দেখভালকারীদের উদাসিনতায় দখলে-দূষণে নদীটি নাব্যতা হারিয়ে ফেলেছে। নদীটি খননে সরকারি কার্যক্রম গ্রহণ না করায় ভরাট হয়ে হুমকির মুখে পড়েছে। নদীটি অবৈধ দখলমুক্ত না হলে ভবিষ্যতে মুক্তাগাছা শহরের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থায় মারাত্মক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি এবং আসছে বর্ষায় শহর জলমগ্ন হয়ে পড়বে।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস এনটিভি অনলাইনকে বলেন, নদ-নদী পুনরুদ্ধার ও খননে সরকারের একটি মহাপরিকল্পনা আছে। সেই মহাপরিকল্পনার আওতায় ময়মনসিংহে নাব্যতা হারানো নদ-নদী খননসহ কেউ দখল করে থাকলে তা দখলমুক্ত করা হবে।

Advertisement