Beta

ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করুন : বি. চৌধুরী

২৭ মে ২০১৯, ২১:৪৪

নিজস্ব সংবাদদাতা
বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি ও সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর পিকিং গার্ডেন রেস্টুরেন্টে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন। ছবি : এনটিভি

ভর্তুকি দিয়ে হলেও ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি ও সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর পিকিং গার্ডেন রেস্টুরেন্টে বিকল্প স্বেচ্ছাসেবকধারা আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান বি. চৌধুরী বলেন, দেশের উন্নয়নে কৃষক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। সুতরাং দেশের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে কৃষকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী এই নেতা বলেন, কোনো অজুহাত নয়, কৃষক বাঁচাতে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে হবে। সরকার নির্ধারিত মূল্যে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে। প্রয়োজনে অর্ধেক দাম আগাম দিয়ে কৃষকের গোলায় ধান রাখা ও সরকারি গুদামে সরবরাহের পর বাকি অর্ধেক দাম পরিশোধ করার পদ্ধতি চালু করতে হবে। সরকারি গুদাম খালি না থাকলে বেসরকারি ও ব্যক্তি খাতের গুদাম ভাড়া নিতে হবে।

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য শমশের মবিন চৌধুরী বীরবিক্রম বলেন, আমাদের কৃষককে অবহেলা করলে চলবে না। কৃষক ধানের মূল্য পাবে না আর রূপপুরে বালিশ কিনতে খরচ হবে হাজার হাজার টাকা, তা হতে পারে না। তিনি আগামী বাজেটে কৃষক ও পাটশিল্প রক্ষায় বিশেষ বরাদ্দ রাখার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান তিনি।

বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় পাটশিল্প ধ্বংস হচ্ছে। শ্রমিক পাচ্ছে না তার পাওনা। তিনি বলেন, সারা দেশে সবখানে সরকারি প্রতিষ্ঠান ও প্রকল্পে ভুয়া বিল করে কোটি কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে লুটেরারা।

বিকল্প স্বেচ্ছাসেবক ধারার সভাপতি মো. আবুল বাশারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াৎ হোসেন বাবুর সঞ্চালনায় সভায় বক্তৃতা করেন লেবার পার্টির চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদী, সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের প্রধান সংগঠক আবু লায়েস মুন্না, বিকল্পধারার সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার ওমর ফারুক, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ওয়াসিমুল ইসলাম, সহসভাপতি ওবায়দুর রহমান মৃধা, বাংলাদেশ জনতা লীগের সভাপতি ওসমান গনি বেলাল, লেবার পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম সুরুজ, যুবধারার সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সারোওয়ার, শ্রমজীবী ধারার সাধারণ সম্পাদক আরিফুল হক সুমন প্রমুখ।

Advertisement