Beta

সরকার গায়ের জোরে যা ইচ্ছে তাই করছে : মির্জা ফখরুল

২৭ মে ২০১৯, ২০:৫১

নিজস্ব সংবাদদাতা

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাংলাদেশ একটি ফ্যাসিস্ট সরকারের কবলে পড়ে একনায়কতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। আজ বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না, চিকিৎসকরা স্বাধীনভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারছে না। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা হরণ করা হচ্ছে। বহু গণমাধ্যম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এখন আবার অনলাইন গণমাধ্যমগুলো গণহারে বন্ধ করে দিচ্ছে। যার ফলে শত শত সংবাদকর্মী তাদের রুটি-রুজি হারাচ্ছেন।

আজ সোমবার বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে বিএনপির মহাসচিব এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে কোনো জবাবদিহিতা নেই। সরকার গায়ের জোরে যা ইচ্ছে তাই করছে। পুলিশ প্রশাসন নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে। মোট কথা, দেশে এক দুর্বিষহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। দেশে খুন, গুম, ধর্ষণের মতো সামাজিক অপরাধ বেড়েই চলছে, যা সরকার কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। সরকার উন্নয়নের গণতন্ত্রের কথা বলছে কিন্তু দেশের গোটা অর্থনৈতিক অবকাঠামো আজ ধ্বংসের পথে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই সরকার সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে। খালেদা জিয়ার অবস্থা বর্তমানে সংকটাপন্ন। আমরা বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও জামিনের জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় এ দেশের গণতন্ত্র মুক্তিকামী মানুষ দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবে ইনশা আল্লাহ।

বিএফইউজে সভাপতি রহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামির সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ ও বরকত উল্লাহ বুলু, দৈনিক নয়া দিগন্তের সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক তাসনিম আলম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আমির নূরুল ইসলাম বুলবুল, বিএফইউজের মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, ডিইউজের সাবেক সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার, এম এ আজিজ প্রমুখ।

Advertisement