Beta

বিয়ের ১১ বছর পর একসঙ্গে ৪ সন্তানের মা হলেন নাটোরের সাহিদা

২৫ মে ২০১৯, ২৩:২৫ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯, ২৩:৩১

শনিবার নাটোর সদর হাসপাতালে এক মায়ের গর্ভে চার নবজাতকের জন্ম হয়। ছবি : পিবিএ

নাটোর সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে এক মা চারটি নবজাতকের জন্ম দিয়েছেন। বিয়ের ১১ বছর পর কৃষক দম্পতির সংসারে এই সন্তানদের জন্ম হয়েছে বলে জানা গেছে।

শনিবার দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটে সদর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে কোনো ধরনের অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে জন্ম নেয় তিনটি মেয়ে ও একটি ছেলে সন্তান। সিংড়া উপজেলার ভাগনাগরকান্দি গ্রামের কৃষক মিলন হোসেন শুক্রবার তাঁর গর্ভবতী স্ত্রী সাহিদাকে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান।

নাটোর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. মাহাবুবুর রহমান জানান, দুটি শিশু সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছে। বাকি দুটি শিশুর ওজন অত্যন্ত কম হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে অনেক চিকিৎসায় ১১ বছর পর একসঙ্গে চারটি সন্তান হওয়ায় খুশি সাহিদা-মিলন দম্পতিসহ তাদের স্বজনরাও।

স্বাভাবিকভাবেই চারটি সন্তান হয়েছে বলে জানান তাদের বাবা মিলন হোসেন।

নবজাতকদের মা সাহিদা খাতুন বলছিলেন, ‘আমি তো সুস্থই আছি। আমার বাচ্চা সুস্থ থাকলেই আমরা খুশি।’

Advertisement