Beta

প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আগে ২৯ জন আটক

২৪ মে ২০১৯, ১১:৩৭ | আপডেট: ২৪ মে ২০১৯, ১২:২৪

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আগে প্রশ্নপত্র ফাঁস করার অভিযোগে এক স্থান থেকে ২৯ জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, আটকদের মধ্যে পরীক্ষার্থী এবং প্রশ্নপত্র ফাঁসচক্রের সদস্য রয়েছেন।

আজ শুক্রবার সকালে কলারোয়া থানার কাছে একটি ভবন থেকে তাঁদের আটক করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরা সিপিসি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট মোহাম্মদ মাহমুদুর বলেন, আজ প্রাথমিক স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা সামনে রেখে পরীক্ষার্থীরা গতকাল বৃহস্পতিবার রাত থেকেই কলারোয়া উপজেলা সদরের সোনালী সুপারমার্কেট ভবনের কিডস ক্লাব সেন্টারে জড়ো হন।

‘চক্রের সদস্যরা রাতভর এবং সকালে মোবাইল ফোনে তাদের কাছে আসা প্রশ্নপত্র ও উত্তর ব্ল্যাকবোর্ডে লিখে দেয়। পরীক্ষার্থীরা তা শিখে নিতে থাকেন।’ 

র‍্যাব কর্মকর্তা আরো বলেন, এই খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা ভবনটি ঘিরে ফেলেন। সেখান থেকে প্রথমে ২২ জন এবং পরে তাঁদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আরো সাতজনসহ মোট ২৯ জনকে আটক করা হয়। তাঁদের মধ্যে একজন ব্যাংক কর্মকর্তাও রয়েছেন।

র‌্যাব জানায়, ঢাকায় একটি প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্র ১২ লাখ টাকার চুক্তিতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এই প্রশ্নপত্র ফাঁস করেছে বলে প্রাথমিকভাবে তাঁরা জানতে পেরেছেন। এ জন্য সিন্ডিকেটের হাতে অগ্রিম পাঁচ লাখ টাকা দিতে হয়েছে। বাকি টাকা পরীক্ষা শেষে দেওয়ার কথা ছিল।

আটকরা এখন র‍্যাবের সাতক্ষীরা ক্যাম্পে রয়েছেন। দুপুর ২টায় এ ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলন করবে র‍্যাব।

পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল গণমাধ্যমকে বলেন, রাতে ও সকালে যেসব প্রশ্ন ব্ল্যাকবোর্ডে লিখে দেওয়া হয়েছে আর পরীক্ষায় যেসব প্রশ্ন এসেছে, তা হুবহু মিলে গেছে।

Advertisement