Beta

কেরানীগঞ্জে গায়ে ‘গরম তেল’ ছুড়ে মারায় গৃহবধূসহ দগ্ধ ৪

২৪ মে ২০১৯, ০৮:৩৬ | আপডেট: ২৪ মে ২০১৯, ১০:১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় গায়ে গরম তেল ছুড়ে মারার ঘটনায় এক গৃহবধূসহ চারজন দগ্ধ হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার পারহাউজ এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। দগ্ধরা হলেন শানু আক্তার (২০), আরমান (২০), তুহিন (২২) ও মেহেদী (১৫)।

দগ্ধ শানুর বাবা শফির উদ্দিন অভিযোগ করেন, পাঁচ মাস আগে প্রতিবেশী অলির সঙ্গে তাঁর মেয়ে শানুর বিয়ে হয়। প্রথম দিকে তাঁরা সুখে থাকলেও বিয়ের এক মাসের মাথায় নানা কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতে থাকে। পরে জানা যায়, অলি মাদকাসক্ত। তারই জের ধরে গতকাল দুপুরে অলি মারধর করায় শানু রাগ করে বাবার বাড়িতে চলে যান।

পরে রাত ১০টার দিকে ওই ঘটনার সুরাহার জন্য শানু প্রতিবেশী আরমান, তুহিন ও মেহেদীকে নিয়ে অলির বড় বোন লিপির কাছে যান। সেখানে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে লিপি ওই চারজনের গায়ে রান্নাঘরে থাকা গরম তেল ছুড়ে মারেন বলে অভিযোগ করেন শানুর বাবা। তিনি আরো বলেন, এতে শানু, আরমান, তুহিন ও মেহেদী প্রত্যেকেই দগ্ধ হন।

পরে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসার জন্য দগ্ধদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরবর্তী সময়ে সেখান থেকে তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে নেওয়া হয়।

বার্ন ইউনিটের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গরম তেলে আক্রান্ত হয়ে শানুর ও আরমানের শরীরের ৬ শতাংশ, মেহেদীর শরীরের ৭ শতাংশ ও তুহিনের শরীর ১২ শতাংশ ঝলসে গেছে।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধরা বর্তমানে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

Advertisement