Beta

জঙ্গি শনাক্তকরণের বিজ্ঞাপনটি সম্প্রীতি বাংলাদেশের নয় : পীযূষ

১৬ মে ২০১৯, ১৬:২০

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি : এনটিভি

জঙ্গি শনাক্তকরণ বিষয়ে প্রচারিত বিজ্ঞাপনের সঙ্গে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশে’র কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

গত ১২ মে জাতীয় একটি দৈনিক পত্রিকায় জঙ্গি শনাক্তকরণ বিষয়ে একটি বিজ্ঞাপন ছাপা হয়। হঠাৎ করে দাড়ি রাখা ও টাখনুর ওপর কাপড় পরা শুরু করা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিয়ে, গায়েহলুদ, জন্মদিন পালন, গান-বাজনাসহ পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠান থেকে গুটিয়ে রাখাসহ বেশ কিছু বিষয়কে ‘জঙ্গিবাদের লক্ষণ’ হিসেবে চিহ্নিত করে বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ করা হয়।

‘সন্দেহভাজন জঙ্গি সদস্য শনাক্তরণের (রেডিক্যাল ইন্ডিকেটর) নিয়ামকসমূহ’ শীর্ষক ওই বিজ্ঞাপনের নিচে লেখা ছিল ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’। জঙ্গি শনাক্ত করার ‘২৩টি উপায়’ জানানো হয় ওই বিজ্ঞাপনে।

বিজ্ঞাপনটি বেশ সমালোচিত হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আজ ওই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশে’র আহ্বায়ক অভিনয়শিল্পী পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি দাবি করেছেন, ওই বিজ্ঞাপন তাঁর সংগঠনের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘জঙ্গি শনাক্তকরণ বিজ্ঞাপন নিয়ে সম্প্রীতি বাংলাদেশ সম্পর্কে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করে দেশের সরলপ্রাণ মানুষদের নানাভাবে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা আমাদের নজরে এসেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘গত ১২ মে দেশের বেশকিছু জাতীয় পত্রিকায় প্রচারিত বিজ্ঞাপনটির সঙ্গে কোনো পর্যায়েই আমাদের প্রিয় সংগঠন সম্প্রীতি বাংলাদেশের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।’

পীযূষ বলেন, ‘অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের পক্ষে কাজ করায় সম্প্রীতি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একটি গোষ্ঠী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।’ ওই বিজ্ঞাপন সেই ষড়যন্ত্রেরই অংশ হতে পারে বলে অভিযোগ তাঁর।

Advertisement