Beta

কিশোরীকে ধর্ষণের পর ফেলে রাখা হয় রাস্তায়

২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৩৯

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রাব্বি হোসেন নামের এক প্রতিবেশী যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

গত বুধবার রাতে উপজেলার বিনাই-পাঁচখুপি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরদিন গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ওই গ্রামেরই একটি রাস্তার পাশ থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেন প্রতিবেশীরা।

পুলিশ জানায়, গত বুধবার রাতে বাড়িতে কেউ না থাকায় ওই স্কুলছাত্রীকে জোর করে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায় প্রতিবেশী যুবক রাব্বি হোসেন। পরে ঘরের ভেতর আটকে রেখে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে রাব্বি। এদিকে বাড়ি ফিরে মেয়েকে না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করতে থাকেন কিশোরীর মা।

পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামের একটি সড়কের পাশে আহত অবস্থায় ওই কিশোরীকে পড়ে থাকতে দেখেন প্রতিবেশীরা। পরে তাকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গতকাল রাতে কিশোরীর মা ক্ষেতলাল থানায় অভিযোগ করলে রাতেই অভিযুক্ত রাব্বি হোসেনকে আটক করে পুলিশ। এ ব্যাপারে কিশোরীর মা বাদী হয়ে ক্ষেতলাল থানায় একটি মামলা করেছেন।

ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহরিয়ার খান জানান, ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষিত হয়েছে বলে আমরা খবর পাই। পরে দ্রুত একটি পুলিশ টিম ঘটনাস্থলে পাঠাই। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রাব্বিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি এখন পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। যে ভিকটিম, তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান ওসি শাহরিয়ার।

Advertisement