Beta

‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র’

০৯ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৫৮

দিদার চৌধুরী, ওয়াশিংটন
ওয়াশিংটনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। ছবি : এনটিভি

গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় যুক্তরাষ্ট্র সব সময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। গতকাল সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে স্টেট ডিপার্টমেন্টে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।’ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথমবারের মতো গত রোববার তিন দিনের সফরে যুক্তরাষ্ট্র যান ড. এ কে আবদুল মোমেন। নিউইয়র্কে ১২ ঘণ্টা অবস্থানের পর সন্ধ্যায় ওয়াশিংটন ডিসিতে যান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

সোমবার দিনের প্রথম কর্মসূচির অংশ হিসেবে ছিল মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে স্টেট ডিপার্টমেন্টে বৈঠক। প্রায় ৫০ মিনিট দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠক করেন। বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন ফিরে যান বাংলাদেশ হাইকমিশনে। সেখানেই ব্যাখ্যা করেন আলোচনার বিষয়গুলো।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আলোচনার একটি বড় অংশ জুড়ে ছিল রোহিঙ্গা ইস্যু। এই ইস্যুতে সব সময় বাংলাদেশের পাশে থাকার কথা জানান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমার স্বীকার করেছিল যে তাদের লোককে তারা নিয়ে যাবে। কিন্তু এখনো তারা নিয়ে যায়নি। সে জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা বলেছি দ্বীপে কিছু মানুষ (রোহিঙ্গা) নিয়ে যাচ্ছি। আগামী মৌসুমে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। তাতে অনেক ভূমিধস হতে পারে। তাদের উন্নত জীবনের জন্যই আমরা সেখানে সরাচ্ছি। উনি (মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী) বললেন, সে ক্ষেত্রে আপনারা একটু চেক করে দেখেন যেখানে নিয়ে যাচ্ছেন, সেখানে ভালো থাকে কি না।’

যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রাশেদ চৌধুরীকে ফিরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

Advertisement