Beta

কালিয়ায় আ.লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ

২৪ মার্চ ২০১৯, ২৩:৫৭

এম. মুনীর চৌধুরী, নড়াইল
নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নওয়াগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রোববার সংঘর্ষ হয়। ছবি : এনটিভি

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নওয়াগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৫টি শটগানের গুলি ছোঁড়ে। রোববার বিকেল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় প্রায় এক ঘণ্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ থাকে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌঁছান।

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নওয়াগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রোববার সংঘর্ষ হয়। ছবি : এনটিভি

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী কৃষ্ণপদ ঘোষের এজেন্ট খায়রুল ইসলামের সঙ্গে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী এস এম হারুন অর রশিদের এজেন্ট ইকবাল হোসেনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে উভয়পক্ষের লোকজন ইট-পাটকেল ও লাঠিসোঁটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৫টি শটগানের গুলি ছোঁড়ে।

নওয়াগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার বিষ্ণুপদ দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ সময় ৪৫ মিনিট ভোট গ্রহণ বন্ধ থাকে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুনরায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ১৫টি শটগানের গুলি বর্ষণ করে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ছাড়া জেলার কোথাও কোনো গোলযোগের খবর পাওয়া যায়নি। তবে ভোটার উপস্থিতি ছিল নগন্য।

Advertisement