১১তম গ্রেডের দাবিতে ভৈরবে সহকারী শিক্ষকদের মানববন্ধন

১৫ মার্চ ২০১৯, ১৭:৪৩

কিশোরগঞ্জের ভৈরব পৌরসভা চত্বরের সামনে শহীদ মিনার পাদদেশে মানববন্ধন করেছেন উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষকরা। ছবি : এনটিভি

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের মানববন্ধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ভৈরব উপজেলা শাখা ওই কর্মসূচির আয়োজন করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভৈরব পৌরসভা চত্বরের সামনে শহীদ মিনার পাদদেশে ওই কর্মসূচি পালন করা হয়। উপজেলা কমিটির সভাপতি তারেক আহমেদের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা অংশগ্রহণ করেন। কর্মসূচি শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর পৃথক স্মারকলিপি প্রদান করেন শিক্ষক নেতারা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকরা আদালতে দশম গ্রেডের রায় পেয়েছেন। এতে সহকারী শিক্ষকদের কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু সহকারী শিক্ষকদের ১৪তম গ্রেড মেনে নেওয়া যায় না। সহকারী শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষকের পরের গ্রেড ১১তম গ্রেড দিতে হবে।

এ সময় শিক্ষক নেতারা আরো বলেন, ‘একই প্রতিষ্ঠানে, একই যোগ্যতা ও একই প্রশিক্ষণ থাকা সত্ত্বেও প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের মধ্যে বেতন গ্রেড ব্যবধান চার ধাপ। এর চেয়ে বৈষম্য আর কী হতে পারে? আমরা এই বৈষম্যের নিরসন চাই।’

বর্তমান সরকারকে শিক্ষাবান্ধব সরকার আখ্যা দিয়ে শিক্ষক নেতারা  বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রায় ৩৭ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেছিলেন। তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজারের বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেছেন। বঙ্গবন্ধু যখন শিক্ষকদের জাতীয়করণ করেন, তখন প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের মধ্যে বেতন গ্রেডের কোনো পার্থক্য ছিল না। কিন্তু বর্তমানে চার ধাপ ব্যবধান, যা একজন সহকারী শিক্ষকের জন্য অসম্মানজনক।’

তা ছাড়া আমরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ চাই না। সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ সৃষ্টি হলে আমাদের বৈষম্য স্থায়ী রূপ ধারণ করবে। প্রয়োজনে অফিসের কাজকর্ম আপডেট রাখার জন্য অফিস সহকারী পদ সৃষ্টি হতে পারে বলে তাঁরা অভিমত ব্যক্ত করেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ভৈরব উপজেলা শাখার উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য শামীম আহমেদ, আবুল মনসুর ভূইয়া, মোতাহার হোসেন, নুরুন্নাহার বেগম, সিনিয়র সহসভাপতি এস এম ফজলুর রহমান, সহসভাপতি শাহিন আহমেদ ভূইয়া, হোসেন আলী, শারমিন সুলতানা, মুহাম্মদ আবদুর রশিদ, আমিনুল ইসলাম লিটন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো. মাছুম মিয়া প্রমুখ।