Beta

সাবেক সাংসদ কবির ও তাঁর চার ছেলেসহ ১৪ জন কারাগারে

১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:০৭ | আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:৩১

কিশোরগঞ্জে পুলিশের করা মামলায় বিএনপি দলীয় সাবেক সাংসদ কবির উদ্দিন আহমেদ ও তাঁর ছেলে করিমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম সুমনসহ ১৪ জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ছবি : এনটিভি

কিশোরগঞ্জে পুলিশের করা মামলায় বিএনপি দলীয় সাবেক সাংসদ কবির উদ্দিন আহমেদ ও তাঁর ছেলে করিমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম সুমনসহ ১৪ জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সোমবার বিকেলে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক আল-মামুন তাঁদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আদালত-সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উচ্চ আদালত থেকে চার সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন শেষে সোমবার কিশোরগঞ্জ জেলা আদালতে আত্মসমর্পণ করেন করিমগঞ্জ-তাড়াইল আসনের সাবেক সাংসদ ও মুক্তিযুদ্ধের কোম্পানি কমান্ডার কবির উদ্দিন আহমেদ, তাঁর চার ছেলে করিমগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক ভিপি সাইফুল ইসলাম সুমন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মাশরুর আহমেদ রুমন, মোসাব্বির হোসেন সাদ্দাম ও শাকিল আহমেদ নাদভী, চার ভাতিজা নিয়ামতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান মেসবাহ উদ্দিন সায়েল, শাহীন, লিমন ও টিপু সুলতান, প্রতিবেশী এরশাদ, বাবলু ও ইয়াছিন এবং দুই গৃহকর্মী কাজল ও আমেনা খাতুন। তাঁদের পক্ষে আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরে তাদের কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগের দিন ২৯ ডিসেম্বর রাতে করিমগঞ্জ থানা পুলিশের একটি দল কবির উদ্দিন আহমেদের ছেলে মোসাব্বির হোসেন সাদ্দামকে ধরতে তাঁর বাড়িতে অভিযান চালায়। অভিযানের সময় পুলিশ সাদ্দামকে আটক করলে আসামিরা পুলিশকে ঘেরাও ও মারপিট করে তাঁকে ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় করিমগঞ্জ সার্কেলের পুলিশ পরিদর্শক খোন্দকার শওকত জাহান বাদী হয়ে সাবেক সাংসদ কবির উদ্দিন আহমেদসহ মোট ১৪ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

Advertisement