Beta

সমালোচনার জবাব দিলেন মৌসুমী

১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:৪৬ | আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:৫২

এফডিসিতে এনটিভি অনলাইনের ক্যামেরা বন্দী হন নায়িকা মৌসুমী। ছবি : মোহাম্মদ ইব্রাহিম

রাজনীতিতে সেভাবে সক্রিয় না হয়েও সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হতে চাওয়া নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন নায়িকা মৌসুমী। এ ছাড়া বিএনপির আমলে দলটির নেতাদের সঙ্গে একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর আরো সমালোচিত হচ্ছেন বড়পর্দার এই পরিচিত মুখ। গত বুধবার সংসদে সংরক্ষিত আসনের জন্য আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কেনেন নায়িকা মৌসুমী।

এ বিষয়ে মৌসুমী এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমি এর আগে প্রকাশ্যে কখনো রাজনীতি করিনি। আমি মনে করি, রাজনীতি যেকোনো মুহূর্তে যে কেউ করতে পারে। হঠাৎ করে মনোনয়ন কেনায় সবাই চমকে গেছেন। অনেকেই এ নিয়ে কথাও বলছেন। আমি এসব নিয়ে ভাবছি না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণদের রাজনীতিতে আসার আহ্বান করেছেন। তিনি তারুণ্যনির্ভর একটি মন্ত্রিসভাও করেছেন। আমিও রাজনীতিতে আসার সাহস পেয়েছি।’

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে তারেক জিয়ার সঙ্গে নায়িকা মৌসুমীর ছবি প্রকাশ পাওয়ার পর অনেকেই দাবি করছেন, তিনি জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংগঠনের (জাসাস) নেত্রী ছিলেন। এ প্রসঙ্গে মৌসুমী বলেন, ‘একজন তারকা দেশের প্রয়োজনে যেকোনো সরকারি অনুষ্ঠানেই থাকতে পারে। সেখানে ছবিও তোলা হয়। তার মানে এই নয়, তিনি ওই সরকারের দল করেন। আমি কোথাও কোনোদিন বলিনি যে আমি কোন দল করি।’

মৌসুমী আরো বলেন, ‘আমার ইমেজ তৈরি হয়েছে চলচ্চিত্র দিয়ে। আমার নতুন করে কোনো পরিচিতি লাগবে না। সুযোগ পেলে আমি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের সেবা করতে চাই। নারী ও শিশুদের নিয়ে কাজ করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি নিজ হাতে সংরক্ষিত আসনে এমপিদের নির্বাচন করবেন। তিনি এও বলেছেন, এই বাছাই প্রক্রিয়া হবে নিরপেক্ষ। তাই আমি সাহস করে এগিয়েছি।’

নিরাপত্তার অভাবে নির্বাচনী প্রচারে ছিলেন না জানিয়ে মৌসুমী বলেন, ‘আমি নিরাপত্তাহীনতার কথা ভেবে যাইনি। দল থেকে আমার সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছিল। আমি বিনয়ের সঙ্গে তাদের বুঝিয়েছি। প্রত্যেকেরই ব্যক্তিগত দর্শন থাকে। আমারও আছে। সেই দর্শন থেকেই প্রচারণায় ছিলাম না। কিন্তু সমর্থন আমার নৌকাতেই ছিল। এটা দলের হাইকমান্ড জানে। এটাকে নিয়ে কথা বলার কিছু নেই।’

তা ছাড়া নৌকার প্রচার করলেই কেউ আওয়ামী লীগার হয়ে যান না বলেও মন্তব্য করেন মৌসুমী। তিনি বলেন, ‘এখন আমি মনোনয়ন কিনেছি, আমি আওয়ামী লীগের মানুষ, এটার প্রমাণ দিলাম। হতেও পারে প্রধানমন্ত্রীর চোখে আমি যোগ্য। তখন কারো কিছু বলার থাকবে না। নেত্রী কখনো বাছাই করতে ভুল করেন না।’

ভক্তদের কাছে দোয়া চেয়ে মৌসুমী বলেন, ‘আমার রাজনীতিতে আসায় যে ভক্তরা কষ্ট পেয়েছেন, তাদের বলব, আমি মৌসুমী নতুন করে আর কোনো মৌসুমী হবো না। আপনাদের ভালোবাসায় এই অবস্থানে এসেছি, এবার দেশসেবা করতে চাই। আমার জন্য দোয়া করবেন।’

Advertisement