Beta

ময়মনসিংহে ডাকাতের গুলিতে পুলিশ আহত

১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:০৪ | আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:১৪

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এএসআই শাখাওয়াতের পাশে ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝিসহ অন্যরা। ছবি : এনটিভি

ময়মনসিংহ শহরে একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ডাকাতির সময় বাধা দেওয়ায় ডাকাতের গুলিতে এক সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আহত হয়েছেন। রোববার ভোররাতের দিকে সদর উপজেলার ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্যের নাম শাখাওয়াত।

পুলিশ জানায়, রোববার ভোররাতের দিকে শহরের ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নূর অ্যান্ড সন্স নামের একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে সশস্ত্র অবস্থায় মুখোশধারী সাত-আটজনের একটি ডাকাতদল ডাকাতির চেষ্টা করে। তারা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ভল্ট ভাঙার চেষ্টা করলে টহলরত পুলিশ টের পেয়ে বাধা দেয়। সে সময় ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে গুলিবিদ্ধ হন কেতোয়ালি থানার এএসআই শাখাওয়াত। ডাকাতদলটি পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। পরে আহত এএসআইকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) নিবাস চন্দ্র মাঝি ও জেলা পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন আহত পুলিশ সদস্যকে দেখতে হাসপাতালে যান ও তাঁর চিকিৎসার খোঁজখবর নেন।

পরে পুলিশ সুপার ডাকাতির ঘটনাস্থলও পরিদর্শন করেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।

শাহ আবিদ হোসেন বলেন, ‘(ডাকাতদের একটা) গ্রুপ এসেছিল, ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করেছে, হয়তো ডাকাতির উদ্দেশে অথবা যেকোনো খারাপ উদ্দেশে। তারা যখন আসে আসার সময় সন্তর্পণে যে সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো ছিল, সেগুলোকে নিষ্ক্রিয় করেছে। যাই হোক তারা ঢুকে একপর্যায়ে ভল্ট ভাঙার চেষ্টা করেছে, কিন্তু পারেনি। বাই দিস টাইম (দোকানের) মালিক এবং আমাদের পুলিশ, পাশে যে ভাড়া থাকত, সে যখন এই বিষয়টাকে দেখতে পেয়েছে, সে তড়িৎ ব্যবস্থা নিয়েছে, আমাদের কন্ট্রোলকে জানিয়েছে।

দুই পাশ দিয়ে পুলিশ আসাতে এরা (ডাকাতরা) ডিসপার্সড হয়ে গেছে, আর ডাকাতি করতে পারেনি। কিন্তু যাওয়ার পথে যেহেতু পুলিশ তাদের মুখোমুখি অবস্থানে পড়েছে, একপর্যায়ে পুলিশ যখন চ্যালেঞ্জ করেছে, তারা না থেমে দৌড় দিয়েছে। পুলিশ যখন ধাওয়া করেছে, পেছন দিক দিয়ে গুলি করেছে। আমাদের একজন এটিএসআই, তিনি আহত হয়েছেন। তাঁর মাংসে লেগেছে। হি ইজ আউট অব ডেঞ্জার। কোনো সমস্যা নাই। আমরা বিষয়টিকে যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে অনুসন্ধানে আছি যে, কারা করেছে বা কী বিষয়। যারা এ কাজটি করেছে আইনের আওতায় এনে তাদের শাস্তির ব্যবস্থা হবে।’

Advertisement