Beta

শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:১৪

মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করে শেখ আব্দুল্লাহকে দেওয়ার দাবিতে শনিবার সিরাদিখানের নিমতলায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন স্থানীয় বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। ছবি : এনটিভি

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ-১ (সিরাজদিখান ও শ্রীনগর) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করে শেখ আব্দুল্লাহকে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয় বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলা এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের পাশে ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভ করেন শেখ আব্দুল্লাহর সমর্থকরা। এ সময় শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে পরবর্তী ১২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের দাবি জানান নেতাকর্মীরা।

এর আগে শেখেরনগরে নিজ বাসভবনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে এক সভায় অংশ নেন শেখ আব্দুল্লাহ। সভায় তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপির জন্য কাজ করে আসছি। পাশে থাকার জন্য চেষ্টা করেছি। সম্প্রতি দল যেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে যে সার্কুলার ছিল তাতে তৃণমূলের মতামতকে প্রধান্য দেওয়ার বিষয় ছিল। আমি মনে করি, আমি সার্কুলারের সব বিষয়ে পাস করেছিলাম। তারপরও কেন আমাকে (মনোনয়ন) দেওয়া হলো না তা জানা নেই।’

মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করে শেখ আব্দুল্লাহকে দেওয়ার দাবিতে শনিবার সিরাদিখানের নিমতলায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন স্থানীয় বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। ছবি : এনটিভি

‘২০০৮ সালে হিন্দু সম্প্রদায়ের ১০ হাজার লোককে আমি বিএনপিতে যোগদান করাতে সক্ষম হই। এ আসনে ২০০৮ সালের নির্বাচনে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন পরাজিত হন। অথচ আজ আবার তাঁকেই মনোনয়ন দেওয়া হলো। তিনি অসুস্থ, ঠিক মতো হাঁটতে পারেন না।’ সেই ব্যক্তিকে কীভাবে মনোনয়ন দেওয়া হলো প্রশ্ন তোলেন শেখ আব্দুল্লাহ।

শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, তৃণমূলের মূল্যায়ন করতে হলে গুলশান অফিসে বসে বিবেচনা করলে হবে না। তৃণমূলকে মূল্যায়ন না করলে ঐক্যবদ্ধভাবে জবাব দেওয়ার প্রয়োজন আছে। সভায় দাবি না মানলে উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে গণহারে নেতাকর্মীদের পদত্যাগের হুমকি দেন তিনি।

পরে শেখ আব্দুল্লাহর সমর্থকরা ঝাড়ু হাতে নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন। তারা বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন এবং তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাহার করার দাবি জানান।

সভায় সিরাজদিখান থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মাহমুদুর রহমান, সহসভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, যুগ্ম সম্পাদক হায়দার আলী, লতব্দী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি নূর হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিক মোল্লা, সিরাজদিখান যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবুল বাসার, সিরাজদিখান ছাত্রদলের আহ্বায়ক অহিদুল ইসলাম, বীরতারা ইউনিয়ন সভাপতি সোহরাব হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement