Beta

শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগের নেতাকে কুপিয়ে জখম

১৮ অক্টোবর ২০১৮, ২১:৩২

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার নশাসন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন দেওয়ানকে (৪০) কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে উপজেলার নশাসন ইউনিয়নের সাওরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকেরা জসিম উদ্দিনকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

গুরুতর আহত অবস্থায় জসিম উদ্দিনকে প্রথমে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আনা হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যায়, নশাসন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল হোসেন মোল্লা ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন তালুকদার। সেই নির্বাচনে বাবুল মোল্লাকে সমর্থন দেন জসিম উদ্দিন দেওয়ান। সেই থেকে জসিম উদ্দিন দেওয়ানের সঙ্গে দেলোয়ার হোসেন তালুকদারের মধ্যে বিরোধ চলছিলো। এ বিষয় নিয়ে এলাকায় একাধিক হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে জসিম উদ্দিনের বাড়ির গেটের তালা ভেঙে ১৫ থেকে ১৭ জন লোক ঘরের ভেতরে ঢোকে। শব্দ পেয়ে জসিম উদ্দিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া মফিজ মল্লিক কাছে গেলে তাঁকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান। মফিজের চিৎকারের শব্দ পেয়ে জসিম উদ্দিন দেওয়ান এগিয়ে গেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁর মাথায় ছয়টি আঘাত করা হয়। এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

জসিম উদ্দিন দেওয়ানের শ্যালক জুয়েল হাওলাদার (২৮) বলেন, ‘ইউপি নির্বাচন নিয়ে আমার বোনজামাইয়ের সঙ্গে নশাসন ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন তালুকদারের দ্বন্দ্ব চলছিল। গতকাল রাতে তাঁর (দেলোয়ার হোসেন তালুকদার) লোকজন আমার বোন জামাইকে কুপিয়ে আহত করেন।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও নশাসন ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন তালুকদার দাবি করে বলেন, আমার কোনো লোক জসিম দেওয়ানের ওপর হামলা করেনি। এটি একটি চুরির ঘটনা বলে আমরা শুনেছি। শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে এখন আমাকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় এখনো আমাদের কাছে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। পুলিশের তদন্ত চলছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement