Beta

ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি প্রকাশ করায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা!

০৮ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৫৪

ফেসবুকে নিজের আপত্তিকর ছবি ছড়িয়ে দেওয়ায় মানিকগঞ্জে দিশারী বিশ্বাস মিম নামের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। আজ সোমবার দুপুরে সিংগাইর উপজেলার ছোট কালিয়াকৈর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দিশারী ওই গ্রামের মোহাম্মদ আলী টুলুর মেয়ে। সে  কালিয়াকৈর খান উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণিতে পড়ত।

দিশারীর মামা মিজানুর রহমান জানান, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার নালরা গ্রামের কলেজছাত্র আলাউদ্দিন ভুয়া ইমো আইডির মাধ্যমে তাঁর ভাগ্নির সঙ্গে প্রথমে যোগাযোগ করে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ সময় ইমোর মাধ্যমে তারা কিছু ছবিও আদান-প্রদান করে। কিছুদিন যাওয়ার পর দিশারী ছেলেটির আসল পরিচয় জানলে যোগাযোগ কমিয়ে দেয়। কিন্তু আলাউদ্দিন দিশারীকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিতে থাকে। এতে রাজি না হওয়ায় নানাভাবে দিশারীকে ব্ল্যাকমেইল ও হুমকি দিয়ে আসছিল আলাউদ্দিন। এ ঘটনা আলাউদ্দিনের স্বজনদেরও একাধিকবার জানানো হয়েছে। মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে আলাউদ্দিনকেও।

কিন্তু এতেও ক্ষান্ত হয়নি সে। গত রোববার আলাউদ্দিন তার ফেসবুক আইডি ‘অলেখা কাব্য’তে দিশারীর কয়েকটি আপত্তিকর ছবি পোস্ট করে, যা বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। মানসম্মানের ভয়ে আজ সোমবার দুপুরে নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে দিশারী বিশ্বাস মিম।

খবর পেয়ে সিংগাইর থানা পুলিশ দিশারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ঘটনার পর থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ করে পলাতক রয়েছে বখাটে আলাউদ্দিন।

দুই ভাই এক বোনের মধ্যে দিশারীই ছিল পরিবারের সবার বড়। একমাত্র কন্যা সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় তার মা-বাবা। তাঁরা এঘটনায় দায়ী বখাটের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মতিউর রহমান জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবার থানায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি নিচ্ছে। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement