বেওয়ারিশ হিসেবেই দাফন হলো ‘বোমা শামীম’

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:২৭

মুন্সীগঞ্জ পৌর কবরস্থানে শামীমকে দাফনের জন্য আজ বুধবার কবর খনন করা হয়। ছবি : এনটিভি

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত বোমা শামীমের মরদেহ আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে বেওয়ারিশ হিসেবে দাফন করা হয়েছে।

গত ৭ সেপ্টেম্বর শ্রীনগরের কেসি রোড এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন শামীম ও এখলাসুর। এখলাসুরের লাশ গত শুক্রবার তাঁর বাবা নিয়ে যান। কিন্তু পাঁচ দিন পরও শামীমের লাশ নিতে আসেনি কেউ। তাই আজ বুধবার দুপুর ২টার দিকে পৌর কবরস্থানে তাঁকে বেওয়ারিশ হিসেবেই দাফন করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী। শামীমের পরিবারও ডাকাতির সঙ্গে জড়িত বলে দাবি করছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

ওসি জানান, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনাস্থল থেকেই পিস্তল, ম্যাগাজিন, তিনটি গুলি, ১১টি ককটেল, দুটি ছুরি ও একটি রেজিস্ট্রেশনবিহীন মোটরসাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় শ্রীনগর থানায় পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে।

হত্যা, অস্ত্র ও পুলিশের ওপর আক্রমণের অভিযোগে মামলাগুলো করেছেন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাসুদ মুন্সী। এতে পলাতক অজ্ঞাতপরিচয় দুই জঙ্গিকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশের দাবি, গত জুন মাসে সিরাজদিখান উপজেলার কাকলদী এলাকায় লেখক ও প্রকাশক শাহজাহান বাচ্চু হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন বোমা শামীম। এখলাসুর ছিলেন অস্ত্রের জোগানদাতা। এর আগে ২৮ জুন ওই হত্যা মামলার আরেক আসামি আবদুর রহমানও বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। এরা সবাই জঙ্গি সদস্য বলেই দাবি পুলিশের। 

এই নিয়ে শাহজাহান বাচ্চু হত্যা মামলার তিন আসামি  নিহত হয়েছেন।