ভৈরবে মুক্তিযোদ্ধাকে জখম, দুই ছিনতাইকারী আটক

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:০৭

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে এক মুক্তিযোদ্ধা গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পরে অভিযান চালিয়ে দুই ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। 

গতকাল সোমবার রাত ১১টার দিকে ভৈরব রেলওয়ে জংশন স্টেশন সংলগ্ন কবরস্থান এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সোমবার রাত ১১টার দিকে মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন মজুমদার (৫৫) রেলওয়ে স্টেশন থেকে রিকশায় করে আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়ার পথে কবরস্থানের সামনে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন। সে সময় বাবু (১৫) ও শুভসহ (১৮) কয়েকজন ছিনতাইকারী রুহুল আমিনকে বহনকারী রিকশার গতিরোধ করে তাঁকে ছুরি দিয়ে আঘাত করেন। তাঁর আহাজারি শুনে আশপাশ থেকে এলাকাবাসী দৌঁড়ে এলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়।

আহতবস্থায় রুহুল আমিনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান লোকজন। উন্নত চিকিৎসার জন্য চিকিৎসক রাতেই তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানির সিলেট বিভাগীয় ডিপো ইনচার্জ রুহুল আমিনের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলায়।

অন্যদিকে ছিনতাইয়ের খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ওই এলাকায় গিয়ে ঘটনার বর্ণনা শুনে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় বাবু ও শুভকে আটক করে। সে সময় তাদের কাছ থেকে একটি ছুরি ও একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল বাহার জানান, গতকাল রাতে কবরস্থান এলাকায় ছিনতাইকালে পেশাদার ওই দুই ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছে বলে জানান তিনি। আটক শুভ এলাকার চি‎হ্নিত ছিনতাইকারী। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক ছিনতাই ও চুরির মামলা আছে। ছিনতাইয়ের অভিযোগে বর্তমানে তার বাবাও জেলহাজতে। শুভর বাড়ি শহরের গাছতলাঘাট এলাকায়। আটক আরেক ছিনতাইকারী বাবুর বাড়ি কুলিয়ারচর উপজেলার উসমানপুরে বলে জানান বাহালুল বাহার।