Beta

মাদ্রাসার খেলার মাঠ দখল করে ইউপি সদস্যের ঘাস চাষ

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:০৫ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:৫২

বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার উত্তর চাঁদপাই গ্রামের ‘চাঁদপাই পীর মেছেরশাহ দাখিল মাদ্রাসা’র মাঠটি দখল করে গরুর জন্য ঘাষ চাষ করছেন ইউপি সদস্য মতিউর রহমান। ছবি : এনটিভি

বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের একটি মাদ্রাসার খেলার মাঠ তিন বছরের বেশি সময় ধরে দখল করে সেখানে ঘাস চাষ করছেন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মতিউর রহমান। তিনি চাঁদপাই ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

উত্তর চাঁদপাই গ্রামের ‘চাঁদপাই পীর মেছেরশাহ দাখিল মাদ্রাসা’র এই মাঠটি দখল করে রাখায় ওই মাদ্রাসাসহ আশপাশের শিক্ষার্থীরা খেলাধুলাসহ নানা ধরনের বিনোদন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, মাঠ না থাকায় মাদ্রাসার পাঠদান শেষে কিংবা টিফিনের ফাঁকে খেলাধুলাও করতে পারে না তারা।

শনিবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, মাদ্রাসাটির মাঠ বলতে কিছু নেই। মাদ্রাসার মাঠের চারপাশ নেট দিয়ে ঘেরা। মাঠের প্রায় ১২ শতক জমিতে রয়েছে দুই হাত লম্বা সবুজ ঘাস ও কলাগাছ। ঘাসে ভরা এই জমিই মাদ্রাসাটির একমাত্র খেলার মাঠ বলে জানিয়েছে শিক্ষার্থী ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সাব্বির হোসেন, ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র মো. হোসাইন শেখ ও অষ্টম শ্রেণির  রোকাইয়া আক্তার, তাইয়েবা আক্তার তান্না জানায়, তাদের মাঠ আটকে মতি মেম্বার তাঁর গরুর জন্য ঘাস চাষ করছেন। তারা খেলবে কোথায়? তাদের তো খেলার জায়গাই নেই।

মাদ্রাসার সুপার হুমায়ুন কবির বলেন, ‘মাঠ দখল করে স্থানীয় মতি মেম্বারের ঘাস চাষ করার বিষয়টি সত্য। তবে এতে আমার কোনো হাত নেই। মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির (স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান) নির্দেশে ঘাস চাষ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।’ এতে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা বন্ধসহ নানা অসুবিধা হচ্ছে বলেও তিনি স্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা তারিকুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলতে তাঁর মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। মোল্লা তারিকুল ইসলাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও চাঁদপাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

স্থানীয় বাসিন্দা জহুর আলী ও মো. মিলন শেখ জানান, চাঁদপাই ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মতিউর রহমান তিন বছর ধরে মাঠটি দখল করে উন্নত জাতের গরুর জন্য ঘাষ চাষ করে আসছেন। ঘাষ চাষের আগে সেখানে তিনি পেঁপে, কলাসহ বিভিন্ন শাকসবজির চাষ করে ব্যবসা করেছেন। এর সঙ্গে মাদ্রাসার প্রিন্সিপালও জড়িত বলে জানান তাঁরা।

উত্তর চাঁদপাই গ্রামের অভিভাবক ও বাসিন্দারা বলেন, ইউপি সদস্য মাঠ দখল করে রাখায় মাদ্রাসায় ছেলেমেয়েরা কোনো খেলাধুলা করতে পারে না। এটি কি হতে পারে? মেম্বার-চেয়ারম্যানরা প্রভাবশালী হওয়ায় এ নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দিয়েও কোনো লাভ হয়নি। তাঁরা আক্ষেপ করে বলেন, ‘আপনারাও লেখালেখি করে কিছু করতে পারবেন বলে মনে হয় না।’

এদিকে ইউপি সদস্য মতিউর রহমান মাঠ দখল করে ঘাস চাষের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘আমি মিথ্যা বলব না, মাঠে ঘাস চাষ করে আমার গরুকে খাওয়াই। মাঠের বালু যাতে ধুয়ে না যায়, সে জন্য আগে কলা, পেঁপে ও পেয়ারা গাছ লাগিয়েছি। এখন ঘাস চাষ করছি। ঘাস বড় হলে কেটে নিয়ে মাঠ ছেড়ে দেবো।’

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ‘চাঁদপাই পীর মেছেরশাহ দাখিল মাদ্রাসার মাঠ দখল করে ঘাস চাষের বিষয়টি আমার জানা ছিল না। খোঁজ-খবর নিয়ে আমি দ্রুত এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement