Beta

বাসে প্রতিবন্ধীকে ‘ধর্ষণ’, সুপারভাইজার রিমান্ডে

০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:১১

টাঙ্গাইলে বাসের ভেতরে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করার মামলায় টিটি ট্রাভেলস বাসের সুপারভাইজার এরশাদকে আজ মঙ্গলবার দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের রিমান্ডে দিয়েছেন আদালত। ছবি : এনটিভি

টাঙ্গাইলে বাসের ভেতরে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করার মামলায় টিটি ট্রাভেলস বাসের সুপারভাইজার এরশাদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের রিমান্ডে দিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আশিকুজ্জামানের আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গতকাল সোমবার এরশাদকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। অন্যদিকে আসামির পক্ষে রিমান্ডের বিরোধিতা করে জামিন আবেদন করা হয়। আজ শুনানি শেষে আদালত চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানান আদালত পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম।

অন্যদিকে গতকাল আদালত টাঙ্গাইল কারাগারে নিরাপদ হেফাজতে থাকা ওই তরুণীকে তাঁর ভাইয়ের জিম্মায় হস্তান্তরের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এরপর মেয়েটিকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বাসটির চালক এখনো পলাতক। তাঁকে গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

এর আগে গত ৩১ আগস্ট শুক্রবার গ্রেপ্তার হওয়া বাসের চালকের সহকারী (হেলপার) নাজমুল আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে স্বীকার করেন, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে তিনি ও সুপারভাইজার বাসের ভেতরে ধর্ষণ করেন।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার বাসিন্দা ওই তরুণী ঈদুল আজহার আগে রাজধানীতে বড় বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান। ২৩ আগস্ট তিনি নিখোঁজ হন। এ ব্যাপারে বড় বোন সবুজবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

গত বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে টহলরত পুলিশ দল ওই এলাকার নৈশপ্রহরী শাহ আলমের মাধ্যমে জানতে পারে যে, বাসস্ট্যান্ডে টিটি ট্রাভেলসের একটি বাসের ভেতরে নারীর কান্নার শব্দ শোনা যাচ্ছে। এ খবর পেয়ে ওই টহলদল বাসটিতে গিয়ে প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে উদ্ধার করে। এ সময় ওই তরুণী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ ওই বাসের হেলপার নাজমুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement