Beta

ঠাকুরগাঁওয়ের এসপির প্রত্যাহার দাবি বিএনপির

০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৩১

মো. লুৎফর রহমান মিঠু, ঠাকুরগাঁও
ঠাকুরগাঁও জেলার পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ। ছবি : সংগৃহীত

বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন থেকে শুরু করে গত তিন দিনে ঠাকুরগাঁও বিএনপির ৯০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে জেলা বিএনপি।

আজ সোমবার ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতারা এই দাবি করেন। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে পাঁচটি মামলা করে এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার ও বাকিদের পুলিশী হয়রানি করা হচ্ছে বলে তাদের দাবি।

এ ছাড়া জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে  বিএনপিকে সভা, সমাবেশ ও ঘরোয়া বৈঠক করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন বিএনপির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়েন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র মির্জা ফয়সাল আমীন।

আজ সোমবার ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেন জেলা বিএনপির নেতারা। ছবি : এনটিভি

এ সময় বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তৈমুর রহমান। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার পুলিশ প্রশাসনের মাধ্যমে বিএনপির ওপর অত্যাচার, নিপীড়ন, মামলা, হামলা, গ্রেপ্তার করে বিএনপিকে নির্বাচনের মাঠ থেকে দূরে রাখার নীল নকশা বাস্তবায়ন করে চলেছে। সারা দেশের মতো ঠাকুরগাঁও জেলাও এই হীন দূরভিসন্ধিমূলক পরিকল্পনা থেকে বাদ পড়েনি।’

এ সময় পুলিশ সুপারের ফেসবুক আইডি থেকে নৌকা মার্কায় ভোট চাওয়া হয়েছে এমন অভিযোগ করা হয়। এভাবে তিনি প্রশাসনের নিরপেক্ষতা লঙ্ঘন করেছেন বলে অভিযোগ বিএনপি নেতাকর্মীদের। এর পরিপ্রেক্ষিতে ঠাকুরগাঁও জেলার পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদকে প্রত্যাহারের দাবি জানায় জেলা বিএনপি।

সংবাদ সম্মেলন শেষে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল জেলা প্রশাসক মো. আখতারুজ্জামানের কাছে একটি  স্মারকলিপি দেন।

১৮তম বিসিএসের কর্মকর্তা ফারহাত আহমেদ ২০১৫ সালের ১০ সেপ্টেম্বর ঠাকুরগাঁও জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেন। এরই মধ্যে তাঁর পাঁচটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement