Beta

কয়লা ‘হাওয়া’র পর পাথর উধাও!

০৯ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০৩ | আপডেট: ০৯ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৪৯

দিনাজপুর বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না কাটতেই পার্বতীপুর মধ্যপাড়া মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের পাথরের স্টকে হিসাবের গরমিল দেখা দিয়েছে। ছবি : এনটিভি

দিনাজপুর বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না কাটতেই পার্বতীপুর মধ্যপাড়া মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের পাথরের স্টকে হিসাবের গরমিল দেখা দিয়েছে। দেশের একমাত্র পাথর খনিতে হিসাবের এই গরমিলে উদ্বিগ্ন এলাকাবাসী ও শ্রমিকরা।

জানা যায়, গত ২৯ জুলাই মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের বোর্ড সভায় পাথরের হিসাবে গরমিল হওয়ার বিষয়টি উত্থাপিত করা হয়। একই দিনে বিষয়টি তদন্তের জন্য পেট্রোবাংলার মহাব্যবস্থাপককে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়।

প্রাথমিক তদন্তে কাগজ-কলমে প্রায় ৫৬ কোটি টাকা মূল্যের তিন লাখ ৬০ হাজার টন পাথরের ঘাটতি রয়েছে বলে জানা গেছে। তবে মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানির কর্মকর্তাদের দাবি, এই পাথর খনিতেই আছে।

মাইনিং কোম্পানির জেনারেল ম্যানেজার (অপারেশন) মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, ‘(পাথর) বিদ্যমান আছে, আমি আপনাদের বাস্তবে দেখাব, এবং (সে পাথর) বিক্রয় অযোগ্য, বিক্রয় করা যাচ্ছে না, কিন্তু পাথরের অস্তিত্ব আছে, মেজারমেন্ট করলে সম্পূর্ণ বের হয়ে আসবে।’ তদন্ত করলে হিসাবের কোনো গরমিল পাওয়া যাবে না বলেও এ সময় দাবি করেন তিনি।

কোম্পানির জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং) আবু তালেব ফারাজী জানান, পাথর পরিবহনের সময় ও ট্রাকে তোলা বা নামানোসহ বিভিন্ন কারণে ২ শতাংশ সিস্টেম লস হয়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement