Beta

একে একে সেপটিক ট্যাংকে ঢুকে মরলেন তিন শ্রমিক

০৬ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৩৮

নরসিংদী শহরের বিলাসদি ব্যাংক কলোনি এলাকায় আজ সোমবার সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে তিন শ্রমিকের মৃত্যু হয়। ছবি : এনটিভি

নরসিংদীতে নির্মাণাধীন একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে তিন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ হয়ে পড়েছেন আরো একজন। আজ সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে শহরের বিলাসদি ব্যাংক কলোনি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের নাম ঠিকাদার সিরাজ (৩৫), শ্রমিক রমিজ (১৭) ও রাকিব (২২)।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, বিলাসদি ব্যাংক কলোনি এলাকায় নতুন একটি বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছিল। কয়েকদিন আগে সেপটিক ট্যাংকটির ছাদের ঢালাই দেওয়া হয়। আজ দুপুরে ট্যাংকের ভেতরে কাঠ ও বাঁশ খোলার জন্য রমিজ নামের এক শ্রমিক ভেতরে প্রবেশ করেন। বেশ কিছুক্ষণ পেরিয়ে গেলেও তাঁর কোনো সাড়া শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে রাকিব নামের আরো এক শ্রমিককে পাঠানো হয়। তিনি যাওয়ার পর তারও কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে শেষে বাড়ির ঠিকাদার সিরাজ যান। পরে, তাঁরও কোনো সাড়া শব্দ পাওয়া যায় না। তাদের খোঁজ নিতে আরো এক শ্রমিক ভেতরে মাথা দিয়ে দেখতে গেলে, তিনিও অসুস্থ হয়ে যান। পরে, ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়।

কিন্তু ট্যাংকের সরু মুখ ও অন্ধকারের কারণে ভেতরে আটকে পড়াদের উদ্ধার করা যাচ্ছিল না। পরে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট যৌথভাবে ট্যাংকের ছাদ ভেঙে তাদের বের করে নিয়ে আসে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। বাড়ির মালিককে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক মো. শফিকুর ইসলাম বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে, নির্মাণাধীন বন্ধ ট্যাংকটিতে প্রচণ্ড মিথেনাইল গ্যাস হয়ে গিয়েছিল। তাই, শ্রমিকরা ভেতরে ঢোকার সাথে সাথেই অজ্ঞান হয়ে যায়।’ 

নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. এম এন মিজানুর রহমান বলেন, হাসপাতালে আনার পর তাঁদের তিনজনকেই মৃত হিসেবে পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে অক্সিজেনের অভাব ও বিষাক্ত গ্যাসের কারণেই তাঁদের মৃত্যু হয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement