Beta

রমিজ উদ্দিন কলেজকে প্রধানমন্ত্রীর ৫টি বাস হস্তান্তর

০৪ আগস্ট ২০১৮, ১০:৩৮ | আপডেট: ০৪ আগস্ট ২০১৮, ১২:৫৯

নিজস্ব প্রতিবেদক
শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পাঁচটি বাস তুলে দেওয়া হয়। ছবি : সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া পাঁচটি বাস শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এই কলেজেরই দুই শিক্ষার্থী সম্প্রতি বাসচাপায় নিহত হয়।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) বিপরীতে কলেজের অধ্যক্ষ নূর নাহার ইয়াসমিনের কাছে বাসগুলোর চাবি হস্তান্তর করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে চাবি তুলে দেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া।

এ বিষয়ে গতকালই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সহকারী প্রেস সচিব আশরাফ সিদ্দিকী বিটু সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ছাড়া আহত হয় বেশ কয়েকজন। নিহত শিক্ষার্থীরা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এরই মধ্যে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন। নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের পক্ষ থেকেও পাঁচ লাখ টাকা করে দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এরপর থেকে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় বাস চলাচল একেবারেই কমে যায়। এমনকি আন্তজেলা বাস চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা নয়টি দাবি করেছে। তাদের সব দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালও বলেছেন, শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। এখন তাদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার উচিত বলে জানান তিনি।

এরই মধ্যে গণপরিবহন মালিক-শ্রমিক সমিতির নেতারা বলেছেন, নিরাপদ বোধ না করা পর্যন্ত তারা রাস্তায় বাস নামাবেন না। ফলে অঘোষিত ধর্মঘট চলছে। গতকাল থেকেই আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement