Beta

নড়িয়ায় বাসের ধাক্কায় ছেলের মৃত্যু, বাবা আহত

০১ জুলাই ২০১৮, ১৬:১৬

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় আজ রোববার সকালে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক সাইফুল ইসলামের (২২) মৃত্যু হয়েছে। এ সময় মোটরসাইকেলের আরোহী সাইফুলের বাবা ফরিদ হোসেন মোল্যা গুরুতর আহত হন।

ফরিদ হোসেন মোল্যাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নড়িয়া থানা সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শরীয়তপুর সদর উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের সারেঙ্গা মোল্লাকান্দি গ্রামের ফরিদ হোসেন মোল্যা ও তাঁর ছেলে সাইফুল ইসলাম মোটরসাইকেলে করে নড়িয়া উপজেলার ডগ্রী বাজারের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার উদ্দেশে রওনা দেয়। পথে নড়িয়া উপজেলার কাজীকান্দি মোড় নামক স্থানে ঢাকা-শরীয়তপুর মহাসড়কে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো-জ ৫৭৮৬) মোটরসাইকেলটিকে জোরে ধাক্কা দেয়। মোটরসাইকেলে থাকা বাবা ফরিদ হোসেন মোল্যা ও তাঁর ছেলে সাইফুল ইসলাম ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। তাৎক্ষণিক স্থানীয় লোকজন তাঁদের দুজনকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক ছেলে সাইফুলের অবস্থা বেগতিক দেখে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিতে বলেন। ঢাকায় যাওয়ার পথে জাজিরা উপজেলার কাজিরহাট নামক স্থানে পৌঁছলে বেলা সাড়ে ১১টায় সাইফুল মারা যান।

এলাকাবাসী বাসটি আটক করে নড়িয়া থানা পুলিশের হেফাজতে দেয়। এ সময় বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

আহত সাইফুলের বাবা ফরিদ হোসেন মোল্যাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সাইফুলের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement