Beta

আটক ছিনতাইয়ের অভিযোগে, আদালতে সোপর্দ ৫৪ ধারায়!

১৭ জুন ২০১৮, ২০:২৪

ঈদুল ফিতরের আগের রাতে মোংলা-খুলনা মহাসড়কে ছিনতাইয়ের আটক সবুর, আসলাম ও মাসুম (বাঁ থেকে)। ছবি : এনটিভি

বাগেরহাটের মোংলায় পুলিশ পরিচয় দিয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। ছিনতাইকারীদের মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লেগে একজন নিহতও হয়েছে। তবে পুলিশ আটক ব্যক্তিদের আদালতে পাঠিয়েছে ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে। পুলিশের বক্তব্য, আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ না করায় তা করা হয়েছে।

গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টায় মোংলা-খুলনা মহাসড়কে ওই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। ওই রাতেই সবুর, আসলাম ও মাসুম নামের তিন ব্যক্তিকে ছিনতাইয়ের অভিযোগে আটক করে স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে তাদের পুলিশে সোপর্দ করে। ওই তিন ব্যক্তির মোটরসাইকেলের গতিরোধ করতে গিয়ে আহত হন আজিজুল (২৮) নামের এক ব্যক্তি। ঘটনার পরই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। আজ রোববার নিজ বাসায় মারা যান আজিজুল।

গতকাল শনিবার দুপুরে আটক তিন ব্যক্তিকে ৫৪ ধারায় প্রেপ্তার দেখিয়ে বাগেরহাট আদালতে পাঠায় পুলিশ। এদিকে আজিজুল মারা যাওয়ায় এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঈদের আগের দিন শনিবার রাত ১২টার দিকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে সবুর, আসলাম ও মাসুম মোংলা-খুলনা মহাসড়কের দিগরাজ বাজার সংলগ্ন আপাবাড়ী এলাকায় তরিকুল ইসলাম নামের এক যুবকের কাছ থেকে সাড়ে ৬ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এরপর ছিনতাইকারীরা মোটরসাইকেল নিয়ে মোংলা বাসস্ট্যান্ডের দিকে রওনা হয়।

ছিনতাইয়ের শিকার তরিকুল দিগরাজ বাজারে থাকা তাঁর পরিচিত লোকজনকে ছিনতাইকারীদের বিবরণ দিলে বাজারের লোকজন একত্রিত হয়ে ওই তিন ব্যক্তিকে ধরে ফেলে। উপস্থিত জনতা ছিনতাইকারীদের পিটুনি দিয়ে রাতেই পুলিশে দেয়। পুলিশ একটি মোটরসাইকেলসহ ওই তিন ব্যক্তিকে আটক করে। এরপর ঈদের দিন শনিবার দুপুরে ওই তিন যুবককে ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

৫৪ ধারায় আদালতে চালান করার ঘটনায় স্থানীয় জনমনে নানা প্রশ্ন ও গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে দিগরাজ বাজারের একাধিক ব্যবসায়ী বলেন, পুলিশ পরিচয় দিয়ে ছিনতাই করা তিন যুবককে ধরে পুলিশে দেওয়ার পরও তাদের বিরুদ্ধে ছিনতাই মামলা না হয়ে ৫৪ ধারায় চালান হলো কীভাবে?

মোংলা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বিশ্বজিৎ মুখার্জী বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে কেউ কোনো অভিযোগ না দেয়ায় তাদেরকে ৫৪ ধারায় চালান করা হয়। যেহেতু ওই ঘটনায় আহত আজিজুলের মৃত্যু হয়েছে এবং তাঁর লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। এখন নিহতের পরিবার কিংবা যে কেউ এজাহার দিলেই মামলা নেওয়া হবে।

এসআই বিশ্বজিৎ আরো জানান, মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কায় আজিজুল মাথায় আঘাত পান। আহত হওয়ার পর আজিজুলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল শনিবার রাতেই আজিজুলকে বাসায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়। আজ নিজ বাসায় আজিজুল মারা যান।  

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, তিন যুবককে ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠানো হলেও এখন এ ঘটনায় মামলা দায়ের হবে এবং এই মামলায় তাদেরকে শোন অ্যারেস্ট দেখানো হবে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement