Beta

৯৯৯-এর ফোন পেয়ে টর্চার সেল থেকে ব্যবসায়ীকে উদ্ধার

০৬ মে ২০১৮, ২৩:২৪

টর্চার সেল থেকে উদ্ধারের পর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও এপেক্স ক্লাব অব মুন্সীগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন। ছবি : এনটিভি

মুন্সীগঞ্জের শীর্ষস্থানীয় সন্ত্রাসী আব্দুল মন্নান ওরফে মন্নার টর্চার সেল থেকে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও এপেক্স ক্লাব অব মুন্সীগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে মন্নাকে গ্রেপ্তার করেছে।

সরকারি হেল্প লাইন ৯৯৯-এর ফোন পেয়ে সদর থানার পুলিশ রোববার দুপুর ২টার দিকে মুন্সীগঞ্জ শহরের উপকণ্ঠ পঞ্চসার ইউনিয়নের নতুনগাঁও এলাকা থেকে মকবুলকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তাঁকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেন। 

আহত মকবুলের বড় ভাই মনির হোসেন দেওয়ান বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে মন্নার কোনো বিরোধ নেই। মন্না আমাদের ক্রয়কৃত সম্পত্তি কয়েকজন সন্ত্রাসী নিয়ে দখল করতে আসে। একপর্যায়ে মন্না আমার ছোট ভাই মকবুলকে ফোন করে নিয়ে যায়। মোটরসাইকেল থেকে নামার আগেই তার সন্ত্রাসী বাহিনী মকবুলকে মন্নার টর্চার সেলে নিয়ে গিয়ে এসএস পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে। একপর্যায়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করে। মকবুল টাকা দিতে নারাজ হলে তাঁকে  মেরে ফেলার হুমকি দেয়। 

মনির হোসেন জানান, পুলিশের সাহায্যে মকবুলকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে তাঁর ভাই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। 

এ বিষয়ে সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) জাহাঙ্গীর আলম জানান, মকবুলকে উদ্ধারে পুলিশের সহায়তা চেয়ে কেউ হয়তো হেল্প লাইন ৯৯৯-এ ফোন করেছিলেন। ৯৯৯-এর ফোন পেয়ে তারা ধরে নিয়ে যাওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে মকবুল হোসেনকে উদ্ধার করেন এবং মন্নাকে আটক করেন। মন্নার বিরুদ্ধে আগেও কয়েকটি মামলা রযেছে। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অপহরণের মামলা হওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement