Beta

পুলিশ নিয়ে ‘মন্ত্রীর উপহার’ দিলেন, চাইলেন দুই লাখ টাকা!

২২ এপ্রিল ২০১৮, ২০:৫০

ঝালকাঠি শহরে মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের জেলা ডিপোর ব্যবস্থাপকের কক্ষের সামনে জেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য ইয়াসিন ভূঁইয়া ও দুই পুলিশ সদস্য। ছবিটি সিসি টিভির ফুটেজ থেকে নেওয়া।

ঝালকাঠিতে শিল্পমন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে ছাত্রদলের সাবেক এক নেতা মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের জেলা ডিপোর ব্যবস্থাপকের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝালকাঠি টাউন পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বশির উদ্দিন। তাঁকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন পুলিশ সুপার। 

জানা যায়, শহরের টাউন পুলিশ ফাঁড়ির পাশেই অবস্থিত জেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য ইয়াসিন ভূঁইয়ার শাহিন ডিপার্টমেন্টাল স্টোর। কাছাকাছি হওয়ায় ফাঁড়ির এসআই মো. বশির উদ্দিনের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলেন শহরের ডাক্তারপট্টি এলাকার বাসিন্দা ইয়াসিন। গতকাল শনিবার দুপুরে ইয়াসিন মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের জেলা ডিপো ব্যবস্থাপক মো. মাহবুবর রহমানের কাছে মুঠোফোনে কল দেন। ডিপো ব্যবস্থাপক কল গ্রহণ করলে অপরপ্রান্ত থেকে শিল্পমন্ত্রীর লোক পরিচয় দিয়ে তাঁর অবস্থান জানতে চান ইয়াসিন। মাহবুবর রহমান বাইরে আছেন জানালে ইয়াসিন রোববার দুপুরে তাঁর কার্যালয়ে যাওয়ার কথা বলেন। 

ঝালকাঠি শহরে মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের জেলা ডিপোর ব্যবস্থাপকের কক্ষের সামনে জেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য ইয়াসিন ভূঁইয়া। ছবিটি সিসি টিভির ফুটেজ থেকে নেওয়া। 

মাহবুবর রহমান জানান, আজ দুপুর পৌনে ১টায় ইয়াসিন শহরের ফায়ার সার্ভিস মোড়ের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. বশির উদ্দিন ও কনস্টেবল সমীর নিয়ে একটি কালো রঙের প্রাইভেট কারে তাঁর কার্যালয়ে আসেন। এ সময় একটি শপিংব্যাগে থাকা উপহার সামগ্রী তাঁর হাতে তুলে দেন ইয়াসিন। এই উপহার শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু তাঁর জন্য পাঠিয়েছেন বলে জানান। এ সময় ইয়াসিন মুঠোফোনে একজনের কাছে কল দিয়ে শিল্পমন্ত্রী কথা বলবেন বলে তাঁকে ধরিয়ে দেন। অপরপ্রান্ত থেকে একজন বলেন, ‘ওরা আমার লোক। ওরা যা বলে সে অনুযায়ী কাজ করবেন।’ বলে ফোন রেখে দেন। এরপর ইয়াসিন তাঁর কাছে দুই লাখ টাকা দাবি করেন।

মাহবুবর রহমান বলেন, ওই লোকের কথা শুনে তাঁর সন্দেহ হয়, শিল্পমন্ত্রীর কণ্ঠস্বর তো এমন নয়। এরপর তিনি কক্ষ থেকে বের হয়ে অন্য সহকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন।

মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের ঝালকাঠি জেলা ডিপো ব্যবস্থাপক মো. মাহবুবর রহমানকে ব্যাগে থাকা এই উপহার দিয়ে চাঁদা দাবি করা হয়। ছবি : এনটিভি

তখন অফিসের কর্মীরা জানান, ইয়াসিন ছাত্রদলের সাবেক নেতা। এরপর তিনি সদর থানায় ফোন দেন। থানা থেকে এসআই মিঠুনকে পাঠানো হয়। মিঠুন আসার পর তাঁদের মধ্যে কথোপকথনের একপর্যায়ে তিনজন চলে যায়। এরপর তিনি পুরো বিষয়টি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলমকে জানান।

এদিকে এই ঘটনা জানাজানির পর পুরো জেলা শহরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। 
 
ঝালকাঠির পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান বলেন, ‘চাঁদা দাবির বিষয়ে আমাদের কাছে এখনো কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আপাতত পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্ব থেকে এসআই বশিরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।’  

Advertisement