Beta

চট্টগ্রামের ভাষায় লেখা প্রথম উপন্যাস ‘তোতাপাখির দিস্তান’

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৮:৩৯ | আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২১:৩২

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় লেখা প্রথম উপন্যাস ‘তোতাপাখির দিস্তান’ বই হাতে অতিথিরা। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এই বইয়ের ওপর আলোচনা হয়। ছবি : এনটিভি

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় লেখা প্রথম উপন্যাস ‘তোতাপাখির দিস্তান’-এর ওপর আলোচনা সভা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এই আলোচনা সভা হয়।

‘তোতাপাখির দিস্তান’ বাংলা সাহিত্যে নতুন মাত্রা যোগ করল উল্লেখ করে বইটির ওপর আলোচকরা বলেন, চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষাভাষিদের জন্য এটি একটি মাইলফলক।

গ্রন্থের ওপর আলোচনাকালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দিন আহমেদ বলেন, হাজার বছরের বেশি সময় ধরে চলে আসা চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষা অত্যন্ত সমৃদ্ধ। বর্তমান বইটি এ ভাষায় সাহিত্য চর্চার দ্বার উন্মুক্ত করেছে। তিনি বলেন, দক্ষিণ ভারতের একটি অঞ্চলের বেশি সংখ্যক জনগোষ্ঠীর ভাষা চট্টগ্রামের। এ ছাড়া আরাকান থেকে ফেনী পর্যন্ত চট্টগ্রামের ভাষার বিচরণ বেশি। সিলেট অঞ্চলে প্রচুর চট্টগ্রামের ভাষা আছে। এখন দেড় কোটি মানুষ চট্টগ্রামের ভাষায় কথা বলে।

দৈনিক আজাদীর সম্পাদক এম এ মালেক আঞ্চলিক ভাষায় লেখা ‘তোতাপাখির দিস্তান’ উপন্যাসের লেখককে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাঁর বাবা মরহুম ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক চল্লিশের দশকে চট্টগ্রামের ভাষা নিয়ে একটি বই বের করেন। তবে এটি কোনো উপন্যাস ছিল না। তবে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষা ও চট্টগ্রামের গান তাঁকে সব সময় আকৃষ্ট করে বলে জানান। তিনি আঞ্চলিক ভাষায় লেখা ‘তোতাপাখির দিস্তান’ উপন্যাসের লেখককে ভবিষ্যতে আঞ্চলিক ভাষায় কবিতাসহ নানা মাধ্যমে বই লেখার পরামর্শ দেন।

আঞ্চলিক ভাষায় লেখা ‘তোতাপাখির দিস্তান’ উপন্যাসের লেখক শামসুল হক হায়দরী বলেন, প্রায় দেড় কোটি মানুষ একই ভাষায় কথা বলে- এ ধারণাকে নিয়ে উপন্যাস লেখায় হাত দিয়েছেন। ভবিষ্যতে আর কেউ এ অঞ্চলের ভাষা নিয়ে কাজ করলে আরো বেশি শক্তিশালী, প্রাণবন্ত ও অনেক বেশি সমৃদ্ধ গ্রন্থ রচিত হবে।

টিভি জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন চিটাগাংয়ের সহসভাপতি চৌধুরী ফরিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় দৈনিক আজাদীর সম্পাদক এম এ মালেক, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরোয়ার, টিভি জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন চিটাগংয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও গ্রন্থের লেখক শামসুল হক হায়দরী, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিম উদ্দিন শ্যামল, দৈনিক প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক কবি বিশ্বজিৎ চৌধুরী, সাংবাদিক লেখক মোয়াজ্জেমুল হক, প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বলাকার স্বত্বাধিকারী জামাল উদ্দিন , টিভি জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন চিটাগংয়ের সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ রিটন আলোচনায় অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা। পরে লেখক শামসুল হক হায়দরীকে সংগঠনের একটি সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

‘তোতাপাখির দিস্তান’ প্রকাশ করেছে বলাকা প্রকাশনী। ঢাকা ও চট্টগ্রামের বইমেলাসহ দেশের বিভিন্ন বুক স্টলে বইটি পাওয়া যাচ্ছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement