Beta

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী থানার ওসিকে প্রত্যাহার

১৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৮:০৭

গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে এক মুক্তিযোদ্ধার হাতে সম্মাননা ও পুরস্কার তুলে দেন মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিত দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর ছেলে জিয়ানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদ সাঈদী। তাঁর পাশে উপস্থিত ইন্দুরকানী থানার ওসি মো. মিজানুল হক (বাঁয়ে)। ছবি : সংগৃহীত

পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুল হককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। প্রশাসনিক কারণ দেখিয়ে আজ সোমবার তাঁকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মো. ওয়ালিদ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয় লোকজন জানায়, গত ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিজয় দিবসের প্যারেডে সালাম গ্রহণ করেন মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিত দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর ছেলে জিয়ানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদ সাঈদী। এমনকি মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মাননা এবং পুরস্কারও তুলে দেন তিনি। পুরস্কার পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে সাঈদীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ মামলার বাদীও রয়েছেন। এ সময় বিজয় দিবসের প্যারেডে সালামগ্রহণ মঞ্চে উপস্থিত মাসুদ সাঈদীর পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন ইন্দুরকানী থানার ওসি মো. মিজানুল হক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান। এরপর মাসুদ সাঈদী তাঁর ফেসবুক আইডির টাইমলাইনে একটি ছবি পোস্ট  দেন। এরপর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিত সাঈদীর ছেলের অতিথি হওয়া ও মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়াকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধকে অপমান বলে আখ্যায়িত করে অনেকে।

ধারণা করা হচ্ছে মাসুদ সাঈদীর পাশে থেকে পুরস্কার দেওয়ায় ইন্দুরকানী থানার ওসিকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তবে পুলিশ সুপার এই ধারণাকে নাকচ করে বলেছেন, প্রশাসনিক কারণেই ওসিকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement