Beta

শেষ হলো ‘উত্তরের হাওয়া’র সাহিত্য সন্ধ্যা

০৪ মে ২০১৯, ১৭:৫৩

ফিচার ডেস্ক
অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘উত্তরের হাওয়া’র সাহিত্য সন্ধ্যা। ছবি : সংগৃহীত

সম্প্রতি প্রকাশিত গ্রন্থের আলোচনা, প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ কবিদের কবিতা আবৃত্তি এবং জমজমাট সাহিত্য আড্ডার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘উত্তরের হাওয়া’ সাহিত্য সন্ধ্যা। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কাঁটাবনের কবিতা ক্যাফেতে এই সাহিত্য সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সম্প্রতি প্রকাশিত জেসমিন মুন্নীর গল্পগ্রন্থ ‘সোনার হরিণ’ নিয়ে আলোচনা করেন, কবি ও শিক্ষাবিদ ড. শোয়াইব জিবরান। কবি রকিব লিখনের ‘তুমিই বাংলাদেশ’ কবিতাগ্রন্থ নিয়ে আলোচনা করেন, কবি ও নাট্যব্যক্তিত্ব শেখ ফিরোজ আহমেদ বাবু। কবি নাজমুল আহসানের ‘ক্রমশ জলের দিকে’ কবিতাগ্রন্থের ওপর আলোচনা করেন হোসেন দেলওয়ার।

কবি রবিউল আলমের কবিতাগ্রন্থ ‘ভাবনারা ইয়ারফোনের তারের মতো’-এর ওপর আলোচনা করেন, কবি ও সম্পাদক লিয়াকত বখতিয়ার এবং কবি খয়রুজ্জামান খসরুর ‘দীর্ঘশ্বাস ভেজা আলিঙ্গন’ কবিতাগ্রন্থের ওপর আলোচনা করেন সাম্প্রতিক সময়ের জনপ্রিয় স্লোগানের কবি রকিব লিখন।

প্রতিটি গ্রন্থের আলোচনা শেষে লেখকরা তাঁদের ক্ষুদ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে এমন প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানান।

সমালোচনা সাহিত্যের জীর্ণদশায় ‘উত্তরের হাওয়া’- এর এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কবি জুয়েল মাজহার বলেন, ‘ভিন্নমত সাহিত্যে ও শিল্পে সৌন্দর্য দেয় এবং আমাদের দেশে ভিন্নমতের জায়গা খুব সংকুচিত হয়ে আসছে।’

কবি জুয়েল মাজহার বলেন, ‘আমাদের দেশে সমালোচনা সাহিত্য প্রায় নেই বললেই চলে। গত দুই/তিন দশকে আমাদের শিল্প-সাহিত্যের অঙ্গনে ভিন্নমত খুব বেশি ঠাঁই পাচ্ছে না।’

কবি জুয়েল মাজহার লেখকদের পরিমিতিবোধের ওপর গুরুত্ব দিয়ে বলেন, ‘পরিমিতিবোধ সবকিছুতেই সৌন্দর্য বাড়ায়।’

উত্তরের হাওয়ার প্রধান সমন্বয়ক, কবি ও সম্পাদক সোহেল হাসান গালিবের প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় সংগঠনের সভাপতি হোসেন দেলওয়ার বলেন ‘সবার সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে উত্তরের হাওয়া তার এমন কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে এবং উত্তরের হাওয়া শিল্প-সাহিত্যের বিকাশে কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাবে।’

শিগগিরই উত্তরের হাওয়া সম্প্রতি প্রকাশিত আরো কিছু গ্রন্থসমূহের ওপর আলোচনাসহ তরুণ প্রতিশ্রুতিশীল কবিদের কবিতা নিয়ে আরেকটি পর্ব আয়োজন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে ‘উত্তরের হাওয়া’ সাহিত্য সংগঠনের আবৃত্তি বিভাগের প্রযোজনায় তরুণ কবি রুহুল মাহফুজ জয়, হাসনাত শোয়েব, রিক্তা রিচি, তাহিতি ফারজানা ও রিমঝিম আহমেদের কবিতা আবৃত্তি করেন, নাজমুল ইসলাম, ফারুক হোসেন, সামসুন্নাহার সোমা ও মোক্তার হোসেন।

মঞ্চে উপবিষ্ট কবির সম্মুখে তাঁর কবিতা আবৃত্তির এই নতুন আঙ্গিককে উপস্থিত সব দর্শক-শ্রোতা স্বাগত জানান। আবৃত্তি চলাকালে ওস্তাদ জাহাঙ্গীর আলমের বাঁশির আবহ সুরে বিশেষ আমেজ তৈরি হয়।

উত্তরের হাওয়া সাহিত্য সন্ধ্যার এই আয়োজনে আরো উপস্থিত ছিলেন, কবি ও সম্পাদক অনিকেত শামীম, কবি রাজ্জাক হোসেন, অয়ন আহমেদ, অনিন্দ্য আকাশ, জহির হাসান, শাখওয়াত টিপু, মেঘ অতিথি কথাসাহিত্যক, গবেষক ও সাংবাদিক বিনয় দত্ত, গীতিকার পারভীন মিনুসহ অনেকে।

‘তুমি যেন বলো, আমি যেন শুনি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে সাহিত্য ও সেবামূলক প্রয়াসে প্রতিষ্ঠিত সংগঠনটি ‘উত্তরের হাওয়া’ নামে লিটল ম্যাগাজিন প্রকাশ করে যাচ্ছে। প্রতি সংখ্যায় দেশের তরুণ লেখকদের  কাছ থেকে সংগৃহীত অসংখ্য পাণ্ডুলিপি থেকে একটি নির্বাচিত পাণ্ডুলিপি নিয়ে ম্যাগাজিনটিতে প্রকাশ করা হয়।

এ ছাড়া সংগঠনটির সদস্য ও সংশ্লিষ্টরা নিয়মিত রক্তদান, দুস্থদের শীতবস্ত্র প্রদানসহ দেশের দুর্যোগকালে মানবিক সেবামূলক উদ্যোগ গ্রহণ করে থাকে।

Advertisement