Beta

ভাতা কমানোয় ক্ষুব্ধ ১১ সৌদি প্রিন্স গ্রেপ্তার

০৭ জানুয়ারি ২০১৮, ০৮:৩৭ | আপডেট: ০৭ জানুয়ারি ২০১৮, ০৯:১৮

বিবিসি

ভাতা কমিয়ে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে সৌদি আরবের রিয়াদে রাজপ্রাসাদের সামনে বিক্ষোভ করায় দেশটির ১১ প্রিন্সকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অবশ্য গ্রেপ্তারকৃত প্রিন্সদের নাম জানা যায়নি। সৌদি আরবের ‘সাবক’ নামে একটি অনলাইনের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি সরকার বেশ কিছু অর্থনৈতিক সংস্কারকাজ চালাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে এখন থেকে পানি ও বিদ্যুৎ বিল প্রিন্সদের নিজেদেরই দিতে হবে—এমন নিয়ম জারি করে সরকার। এতে ক্ষুব্ধ হন ওই প্রিন্সরা। তাঁরা সরকারের এমন এক সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছিলেন।

বাদশাহের আদেশে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা রয়েছে এমন একটি কারাগারে প্রিন্সদের পাঠানো হয়েছে বলে সৌদি আরবের অ্যাটর্নি জেনারেল জানিয়েছেন।

সৌদি রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নন।’

বিবিসির প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বিক্ষোভরত প্রিন্সরা গত বছর আরেক প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ার ঘটনার ক্ষতিপূরণও দাবি করছিলেন। এসব কাজে জনসাধারণের শান্তি বিঘ্নিত হওয়া ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায় এনে প্রিন্সদের সেখান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বর্তমানে সৌদি সরকার তেলের ওপর নির্ভরতা কমাতে একটি নতুন অর্থনৈতিক সময়ে প্রবেশের পরিকল্পনা করেছে।

তারই অংশ হিসেবে দেশটিতে দ্বিগুণ করা হয়েছে তেলের দাম এবং বেশিরভাগ ভোগ্যপণ্যের ওপর ৫ শতাংশ হারে ট্যাক্স বসানো হয়েছে। বেশকিছু সরকারি ভর্তুকিও তুলে নেওয়া হয়েছে।

গত নভেম্বরে দেশটির রাজপরিবারের অনেক সদস্য, বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রী এবং শীর্ষ ধনকুবেরদের গ্রেপ্তার করে বন্দি করে রাখা হয়েছে বিলাসবহুল একটি হোটেলে। সৌদি যুবরাজের নেতৃত্বে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে এসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

সৌদি আরবে কয়েক হাজার রাজপরিবারের সদস্য রয়েছেন বলে ধারণা করা হয়, যাঁদের সম্পদ এবং মর্যাদার ক্ষেত্রে পার্থক্য রয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement