Beta

আমিরাতে বিএনপির একপক্ষের সংবাদ সম্মেলন

১৪ অক্টোবর ২০১৭, ২২:০৭

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বিএনপি নেতারা। ছবি : এনটিভি

সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) বিএনপির অভিষেক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর প্রতিবাদে বিএনপি অপর আরেকটি অংশ (প্রকৌশলী রফিক-প্রকৌশলী সালাম খান পক্ষ) গত বৃহস্পতিবার দুবাইয়ের শেরে মোগল হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়েন সংযুক্ত আরব আমিরাত বিএনপির সভাপতি প্রকৌশলী রফিক শিকদার। উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সালাম খান, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এম এনাম হোসেন, ওসমান গনি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থানরত বিএনপির মূলধারার নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে একশ্রেণির বিএনপি নামধারী ব্যক্তিদের অভিষেক নামক প্রহসন মেনে নেওয়া যায় না। সংযুক্ত আরব আমিরাত বিএনপির মধ্যে দ্বিধাবিভক্তি থাকলেও দলের যেকোনো দুঃসময়ে নেতাকর্মীরা ছিলেন সব সময় ঐক্যবদ্ধ।

বিএনপি নেতারা আরো বলেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্দেশনা ও শহীদ জিয়ার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে তারুণ্যের প্রতীক তারেক রহমানের নেতৃত্বে আমিরাতে বিএনপির নেতাকর্মীরা ছিলেন অত্যন্ত সক্রিয়। কিন্তু গত বছরের শেষের দিকে সৌদি আরব থেকে আবদুল মুকিব নামের এক ব্যক্তি সংযুক্ত আরব আমিরাতে কেন্দ্রীয় নির্দেশে প্রহসনমূলক কমিটি গঠন নামে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছেন। তিনি আমিরাতে অবস্থানরত সব ত্যাগী ও পরীক্ষিত এবং শিক্ষিত নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অগ্রহণযোগ্য একটি কমিটি ঘোষণা করেন। যা হাজার হাজার ত্যাগী নেতাকর্মীর দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক আদর্শে চরমভাগে আঘাত হানে, এতে মূলধারার ত্যাগী নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। তাই আরব আমিরাতে অবস্থানরত বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রসহনমূলক কোনো কমিটি মেনে নেবে না।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, যারা দলের মধ্যে বিবাদ সৃষ্টি করে দলের আদর্শে আঘাত হেনে দলকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে, তাদের মূলধারার নেতাকর্মীরা কখনো মেনে নেবে না এবং তারা বিএনপির আদর্শের কেউ হতে পারে না।

আরব আমিরাত বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ জসিম উদ্দীনের পরিচালনায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য প্রকৌশলী রফিক আহমেদ, মো. নুরুল আবছার, সহসভাপতি আলহাজ দিদারুল আলম, মোহাম্মদ ওসমান আলী, মোহাম্মদ নুরুন্নবী চৌধুরী নুরু, হাজি ফারুখ হোসেন, গোলাপ মিয়া, এস এম মনছুর, শওকত খান, প্রকৌশলী মফিজুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, শাখাওয়াত হোসেন বকুল, এস এম মোদাচ্ছের শাহ, প্রকৌশলী রাসেদ, মোহাম্মদ ইদ্রিছ, আহসান আহমেদ হাসান চৌধুরী, মুজিবুল হক, শেখ মুনির, ইদ্রিছ তালুকদার, সোহেল হোসেন খান, মোহাম্মদ এনামুল হক প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা আরো বলেন, ১৩ অক্টোবর শুক্রবারের অভিষেককে কেন্দ্র করে বিএনপি নামধারী ওই চক্রটি ব্যাপক চাঁদাবাজি করেছে। সে হিসাব তাদেরকে অবশ্যই দিতে হবে।

আরব আমিরাত বিএনপির সভাপতি প্রকৌশলী রফিক শিকদার বলেন, ‘অচিরেই সংযুক্ত আরব আমিরাত বিএনপিকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এবং অবিলম্বে আমিরাতে যৌথভাবে একটি শক্তিশালী কমিটি গঠনের দাবি জানাই।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement