Beta

কাতারের পক্ষে বললে জেল-জরিমানা!

০৭ জুন ২০১৭, ২১:০৭

অনলাইন ডেস্ক

কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা হয়েছে। এটা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। এ নিয়ে কোনো কথা বলা যাবে না। কাতারের প্রতি কোনো সহানুভূতিও দেখানো যাবে না। নির্দেশ না মানলে জেল হতে পারে ১৫ বছরের বা জরিমানা গুনতে হবে পাঁচ লাখ দিরহাম। 

সংযুক্ত আরব আমিরাতে এ ধরনের নির্দেশনা জারি হয়েছে। আজ বুধবার খালিজ টাইমসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে। 

গত সোমবার সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ সাতটি দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। অন্য দেশগুলো হচ্ছে বাহরাইন, মিসর, ইয়েমেন, লিবিয়া ও মালদ্বীপ।

ওই ঘোষণার দুদিনের মাথায় নিজ দেশের নাগরিকদের জন্য এমন নির্দেশনা জারি করেছে আমিরাত।  


সংযুক্ত আরব আমিরাতের অ্যাটর্নি জেনারেল ড. হামাদ সাইফ আল শামসি বলেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাতের জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষার জন্য এমন কঠোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যারা কাতারের প্রতি সমবেদনা জানাবে, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

ওই নির্দেশ না মানলে তিন থেকে সর্বোচ্চ ১৫ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। এমনকি সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ দিরহাম পর্যন্ত জরিমানা গুনতে হবে। 

আল শামসি আরো বলেন, ‘কাতারের প্রতি সমবেদনা বা সহানুভূতি প্রকাশ করলে সাইবার ক্রাইমের আওতায় বিচার করা হবে। সামাজিক মাধ্যমে হোক কিংবা অন্য যে কোনোভাবে আরব আমিরাতের সিদ্ধান্তের বাইরে গেলে জেল-জরিমানা করা হবে।’

Advertisement
Advertisement
0.93472981452942