Beta

‘সাকিব, আরো চনমনে হয়ে ফিরে আসুন’

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৪:৫২

স্পোর্টস ডেস্ক

ঘরের মাঠে বাংলাদেশ এখন ক্রিকেটের অন্যতম পাওয়ার হাউস। চেনা কন্ডিশনে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলগুলোও পেরে উঠছে না বাংলাদেশের সঙ্গে। ঘরের মাটিতে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর শ্রীলঙ্কায় গিয়ে সিরিজ ড্র করেছেন মুশফিক-সাকিবরা। এরপর অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশ্বসেরা দলকে কুপোকাত করেছে টাইগাররা। তবে আপাতত ঘরের মাঠে আর সিরিজ নেই। এবার বিদেশ জয়ের হাতছানির সামনে লাল-সবুজের ক্রিকেটাররা।

প্রায় নয় বছর পর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষের মাঠে আগের সাক্ষাৎটা ভুলে যেতে চাইবে টাইগাররা। সেবার দুই টেস্টেই ইনিংস ব্যবধানে হার মানতে হয় সাকিব-মুশফিকদের। এক দশক পর বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনেক পরিবর্তন এসেছে। সেদিনের তামিম-মুশফিকরা আজ বটবৃক্ষে পরিণত হয়েছে। তাই সফরটাকে স্মরণীয় করে রাখতে চান ক্রিকেটাররা।

তবে সফরের শুরুতেই কিছুটা ব্যাকফুটে বাংলাদেশ। কারণ, এই সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে দলের সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে। বিশ্রামের দাবিটা অবশ্য সাকিবই করেছিলেন। সাকিবের চাওয়া মতো তাঁকে কিছুদিনের ছুটি দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।


সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের বিশ্রাম প্রসঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করেছেন সাকিব। গত সোমবার রাতে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে সাকিব বলেন, ‘প্রিয় ফ্যান, আপনারা জানেন আমি কয়েক বছর ধরে দেশের গৌরবের জন্য বিরতিহীন ক্রিকেট খেলে যাচ্ছি, যার কারণে আমার অনেক শারীরিক ও মানসিক ধকল যাচ্ছে। এই ব্যাপার মাথায় রেখে আমি ঠিক করেছিলাম আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট সিরিজের দুটি টেস্টে সাময়িক বিরতি নেওয়ার এবং বিসিবি বিষয়টি তাদের বিজ্ঞ বিবেচনায় নিয়ে আমাকে খেলা থেকে বিরতি নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে।’

‘ফলে আমি মনে করি, সাময়িক এই বিরতি আমাকে আগামী খেলাগুলোর জন্য আরো শক্তি ও মনোবল জোগাবে এবং আমাকে ও পুরো দলকে সাহায্য করবে আগামীতে আমাদের সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে যেতে।’

‘আমি সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই, তাদের সীমাহীন ভালোবাসা ও অনুপ্রেরণার দেওয়ার জন্য। আসুন, সবাই আমাদের টাইগারদের সাফল্য কামনা করি সামনের দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট সিরিজের জন্য।’

সাকিবের এমন স্ট্যাটাস দেওয়ার পরই ভক্ত-সমর্থকরা তাঁকে সমর্থন করে জবাব দিতে থাকেন। রাজু নামের সাকিবের এক ভক্ত বলেন, ‘আপনার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাই। খুব মিস করব দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে টেস্ট দুটিতে। আশা করি, নতুন উদ্যমে ফিরে ক্রিকেট দুনিয়ায় আবার রাজত্ব করবেন। পাশাপাশি, একজন ভক্ত হিসেবে এটাও চাইব যে আফ্রিকার সঙ্গে দ্বিতীয় টেস্টে সাদা পোশাকে আবার মাঠে নামুন। আপনাকে ছাড়া প্রিয় দলটা কেমন জানি শূন্য শূন্য লাগে।’

হ্যাপি খান বলেন, ‘আমরা আপনাকে মিস করব। তবে আপনার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি। আপনি ও আপনার পরিবার দীর্ঘজীবী হোন।’

সাকিব আহমেদ বলেন, ‘আপনাকে ছাড়া বাংলাদেশ দল চিন্তা করা যায় না। আপনি যা করেন, সেটাই ভালো লাগে। আশা করি, আরো বেশি মনোবল নিয়ে ফিরে আসুন।’

ভিন্ন মতও প্রকাশ করেছেন অনেকে। একজন বলেছেন, ‘সাকিব ভাই, আপনি আইপিএল, সিপিএল, বিগ ব্যাশ এইসব খেলা বাদ দিয়ে রেস্টে থাকুন। এমনিতেই বছরে অল্প কয়েকটা টেস্ট খেলে বাংলাদেশ, আবার যদি আপনি রেস্টেও থাকেন, তাতে বাংলাদেশ টিমের জন্য কিছুটা হলেও হতাশাজনক।’

Advertisement
1.3235168457031