Beta

আপনার জিজ্ঞাসা

ইসলামে মানত করা কি জায়েজ?

১৬ জুলাই ২০১৬, ১৬:০৮

অনলাইন ডেস্ক

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।

আপনার জিজ্ঞাসার ১৮৬০তম পর্বে ই-মেইলে মানত করা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন আজিজুল হাকিম। অনুলিখনে ছিলেন জহুরা সুলতানা।

প্রশ্ন : আমি আপনাদের এই অনুষ্ঠান নিয়মিত দেখার চেষ্টা করি। আমার প্রশ্ন হলো, ইসলামে কি মানত করা জায়েজ? সাধারণত আমরা আমাদের নিজেদের স্বার্থেই মানত করি। যেমন : আমার এই কাজ হলে ওই কাজ করব ইত্যাদি। যেহেতু কোরআন বলছে, আল্লাহকে খুশি করা ছাড়া কোনো প্রকার ইবাদত হারাম (সুরা আল বাকারা, আয়াত ২৭২)। এ বিষয়ে একটু বিস্তারিত ব্যাখ্যা করবেন?

উত্তর : হ্যাঁ, ইসলামে মানত করা জায়েজ রয়েছে। যেহেতু আল্লাহতায়ালা কোরআনে বলেছেন, ‘তারা যেন তাদের মানতসমূহ পূর্ণ করে।’ কিন্তু মানতকে পূর্ণ করতে যেহেতু আল্লাহতায়ালা বলেছেন, সেহেতু মানত জায়েজ। রাসুল (সা.) হাদিসের মধ্যে বলেছেন, ‘তোমাদের মধ্যে যে ব্যক্তি আল্লাহর জন্য মানত করে, সে যেন একে আদায় করে।’

তবে ইসলাম মোটেও মানত করার জন্য উৎসাহিত বা অনুপ্রাণিত করেনি। এখানে শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়, এটা করব ওটা পেলে। মানত করা হয়ে থাকে মূলত আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের ওপর শর্ত আরোপের মাধ্যমে। যে কাজটি সত্যিকার অর্থেই শুদ্ধ ও সুন্দর নয়। জায়েজ কিন্তু বিষয়টি সুন্দর নয়। এ ব্যাপারে রাসুল (সা.) হাদিসের মধ্যে বলেছেন, ‘কৃপণ ব্যক্তির মাল থেকে আল্লাহতায়ালা কিছু বের করেন।’

 কৃপণ, বখিল ব্যক্তি আল্লাহর রাস্তায় দান করে না। তখন আল্লাহতায়ালা তার বিভিন্ন রোগবালাই, বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি করে দেন আর তখন সে মানত করে বসে। আল্লাহ এই কৃপণের মাল থেকে এভাবেই গ্রহণ করে থাকেন। এটি ইসলামের শরিয়ত অনুযায়ী নাজায়েজ নয়, জায়েজ রয়েছে।  

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement