Beta

‘আমি চাই বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে একজন হাফেজ থাকবেন’

০৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:২৯

ফিচার ডেস্ক
হাফেজ মাওলানা আবু ইউসুফ। ছবি : এনটিভি

আবারও সামনের রমজানে এনটিভিতে শুরু হচ্ছে হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান ‘পিএইচপি কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে ২০১৮’।অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করবেন সাইফুল্লাহ সাইফ। অন্যদিকে, চলতি বছরে ‘কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে’ অনুষ্ঠানটির ১০ বছর  পূর্তি হয়েছে। এ উপলক্ষে রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে আগামী  শনিবার  একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানটিতে  দেশ ও বিদেশের বিখ্যাত হাফেজ ও মাওলানারা অংশগ্রহণ করবেন। এ প্রসঙ্গে এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন ‘কুরআনের আলো’  ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান  হাফেজ  মাওলানা আবু ইউসুফ।  

এনটিভি  অনলাইন :  ‘কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে’ অনুষ্ঠানটি করার পরিকল্পনা প্রথম আপনি কবে করেছিলেন?

হাফেজ  মাওলানা আবু ইউসুফ :  ২০০৫ সালে মিডিয়ার বাইরে এ ধরনের কার্যকম আমরা শুরু করি। তখন আমরা বিভিন্ন মসজিদে কিংবা অন্য কোনো জায়গায় অনুষ্ঠানটির আয়োজন করতাম।এনটিভিতে  গানের প্রতিভা অন্বেষণে ‘ক্লোজ আপ ওয়ান-তোমাকেই খুঁজছে বাংলাদেশ’ অনুষ্ঠানটি দেখার পর টিভিতে  কুরআনের হাফেজদের নিয়ে একটি রিয়েলিটি শো করার চিন্তা আমার মাথায় আসে। এরপর২০০৯ সালে  একটি বেসরকারি টেলিভশন চ্যানেলে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন আমরা শুরু করি। এরপর গত পাঁচ বছর  ধরে সফলভাবে এনটিভিতে প্রতি রমজানে আমাদের এই অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হচ্ছে। এ জন্য এনটিভির সম্মানিত চেয়ারম্যান আলহাজ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী ও অনুষ্ঠানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা। 

এনটিভি অনলাইন : ‘পিএইচপি কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে’ অনুষ্ঠানটি করে আপনি কতখানি সফলতা পেয়েছেন?  আপনি কি সন্তুষ্ট?

হাফেজ  মাওলানা আবু ইউসুফ :  অবশ্যই। মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কুরআন আমাদের রুহের খোরাক। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কুরআন যে কত আকর্ষণীয় ও মধুর তা আমরা মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। প্রতি বছর বাংলাদেশের সব জেলা থেকে এই অনুষ্ঠানে  অনেক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন।

তাঁদের  মধ্য থেকে ৩৬ জন প্রতিযোগি নিয়ে আমরা মূল অনুষ্ঠান শুরু করি। সেখান থেকে বিচারকদের পছন্দে একজন চ্যাম্পিয়ন, প্রথম রানার আপ ও দ্বিতীয় রানার আমরা নির্বাচন করি। আমরা এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সফল কারণ  আমাদের অনেক প্রতিযোগী আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এটা আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। 

এনটিভি অনলাইন :  ‘কুরআনের আলো’ ফাউন্ডেশন ১০ বছরে পা রেখেছে। ফাউন্ডেশনটি নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

হাফেজ  মাওলানা আবু ইউসুফ :  ‘কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে’ অনুষ্ঠানটির ১০ পূর্তি যেমন হলো তেমনি আমাদের ফাউন্ডেশনের যাত্রার ১০ বছর পূর্ণ হয়েছে। ১০ বছর পূর্তি  অনুষ্ঠানে দেশের বাইরে মিসরের কারি রাফাত হোসোইন, ভারতের কারি মোহাম্মদ আলী খান, ইন্দোনেশিয়ার কারি মমিন  আইনুল মোবারকসহ অনেক খ্যাতিমান হাফেজ উপস্থিত থাকবেন।  আশা করছি, ভবিষ্যতে আমরা আরো ভালো কিছু করতে পারব ইনশা আল্লাহ। 

আমি চাই বাংলাদেশের প্রতিটি  ঘরে একজন হাফেজ থাকবেন। ‘কুরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে’ অনুষ্ঠানটি দেখে অনেকে কুরআনে হাফেজ হওয়ার জন্য উৎসাহী হচ্ছেন। এটা ইতিবাচক ব্যাপার। এনটিভি  কর্তৃপক্ষ এই অনুষ্ঠানের ব্যাপারে অনেক আন্তরিক।  আমি চাইব ভবিষ্যৎ আরো অনেক চ্যানেল এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। এ ছাড়া  ইসলামিক গান, ইসলামভিত্তিক শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান ও অন্যান্য  আরো অনেক অনুষ্ঠান আয়োজন করার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।  এ জন্য সবার সহযোগিতা দরকার।

Advertisement
1.183678150177