Beta

অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাতৃভাষা দিবস পালন

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, ১৩:০৭

রাশেদ শ্রাবন, সিডনি
একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়ার উদ্যোগে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে গত রোববার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়েছে। ছবি: এনটিভি

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকেই আকাশে ছিল কালো মেঘের ছায়া। এসফিল্ড মাঠের গাছগুলো ভীষণ নীরব। উত্তর দিক থেকে প্রচণ্ড বাতাসের বেগে আকাশের মেঘগুলো সরতে না-সরতেই শুরু হলো বৃষ্টি। সাদা আর কালোর বাহারি নকশার পোশাকে অস্ট্রেলিয়ায় জন্ম নেওয়া একঝাঁক তরুণী গুনগুন করে কী যেন গাইছে। একটু খেয়াল করে দেখলাম, এটা তো আমাদের অস্তিত্ব। আমাদের ভাষা আন্দোলনের সেই সুরে আমাদের শব্দগুচ্ছের প্রার্থনা, ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি।’ চোখ পড়ল মাঠের দক্ষিণ পাশের মঞ্চে। ভোর না-হতেই সাদা-কালো আঁচল আর লাল-সবুজের কামিজের পুরো মঞ্চ যেন এক মহাপ্রার্থনা।

বৃষ্টিকে উপেক্ষার মানসিক ক্ষমতা নিয়ে শিশু থেকে বৃদ্ধ, তরুণ-তরুণী সবাই প্রস্তুত ভাষা আন্দোলনের শহীদদের সম্মান জানাতে। রকডেল, লেকেম্বা, প্যারামেটা, মিন্টু, ব্ল্যাক টাউন কিংবা নর্থ সিডনি—বাদ নেই প্রবাসী বাংলাদেশিদের এই প্রার্থনায় শামিল হতে। শিল্পী আমিনা মতিন তাঁর সাদা শাড়ি আর কালো আঁচলের সঙ্গে চুল সাজিয়েছেন লাল লাল গোলাপের পাপড়িতে। তারই পাশে আছেন আরেক শিল্পী পিয়াসা বড়ুয়া, হাতে বিশাল আকৃতির লাল-সবুজের পতাকা। সবাই মিলে এগিয়ে যাচ্ছেন প্রভাতফেরির মিছিল নিয়ে বোলিং ক্লাব হয়ে শহীদ মিনারে। একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি ড. আবদুল ওহাবের নেতৃত্বে বিশাল এই জনস্রোতকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন অভিজিৎ বড়ুয়া, লরেন্স ব্যেরল, খোদেজা জাহান, মিজানুর রহমানসহ সংগঠনের নেতারা।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় স্কুল-কলেজের তৃতীয় প্রজন্মের বাংলাদেশিদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এরই মধ্যে হাজির হয়েছেন বাংলা প্রসার কমিটি, লেকেম্বা বাংলা স্কুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী সংগঠনসহ কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা। মায়ের কোলে ছোট শিশু বসে আছে লাল-সবুজের জার্সিতে কালো ব্যাজ নিয়ে।

যারা বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন দেখেনি কিংবা বাংলাদেশের শহীদ মিনারে কখনো যায়নি, তাদের জন্য অস্ট্রেলিয়ায় ১০ বছর ধরে প্রতিবছর এই আয়োজন করে যাচ্ছে একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া। মায়ের সঙ্গে যেমন তাঁর সন্তানের বন্ধন, তেমনি ভাষার সঙ্গে আছে জনগণের বন্ধন। যেকোনো মানুষের কাছে তাঁর ভাষা গুরুত্বপূর্ণ। সাদামাটা জীবন আর জাঁকজমকপূর্ণ জীবন সে ভাষাকে নিয়ে গেছে দুনিয়ার এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে।

একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বের করেছে বিশেষ প্রকাশনা। বাংলাদেশ হাইকমিশন ক্যানবেরার রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসাইন, ফেডারেল এমপি অ্যান্থনি, এমপি জুলিও ওয়েনস ও কনসাল জেনারেল অ্যান্থনি খোওম বিশেষ বার্তা পঠিয়েছেন।

বিএনপি অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়া বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের আয়োজনে মহান ভাষা দিবসের আলোচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে সিডনির লেকেম্বায় অনুষ্ঠিত হয় শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতা। এতে অংশ নেয় স্থানীয় বাংলা স্কুল চারা ও অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রজন্মের শিশু-কিশোররা। মহান ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস ও এর মহান চেতনাকে নতুন প্রজন্মের কাছে উপস্থাপন করাই ছিল এই আয়োজনের লক্ষ্য বলে জানান সংগঠনের নেতারা।

বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্বর্তী আহ্বায়ক হাজি লুৎফর কবিরের নেতৃত্বে শেফিল্ড শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষাশহীদদের স্মরণ করে বিএনপি অস্ট্রেলিয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদস্য সচিব জাকির আলম লেলিন, সাবেক সভাপতি ডা. আবদুল ওয়াহাব, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা. জাহিদুল ইসলাম, ফজলুল হক শফীক, রুহুল আহমেদ সওদাগর, সাবেক সদস্য সচিব ইকবাল মাহমুদ সোহেল, অস্ট্রেলিয়া যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. আবুল হাছান প্রমুখ।

Advertisement
Advertisement