Beta

আদম পাচার : মালয়েশিয়ায় অনন্য মামুন গ্রেপ্তার, প্রবাসীদের ক্ষোভ

২৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:১৩

মালয়েশিয়ায় ‘বাংলাদেশ নাইটস’ নামে মানব পাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন বাংলাদেশি চলচ্চিত্র নির্মাতা অনন্য মামুন। সেইসঙ্গে পাচার হওয়া ৫৭ জনকেও গ্রেপ্তার করেছে মালয়েশিয়ার গোয়েন্দা পুলিশ।

গত রোববার দিবাগত রাত ১২টায় পুলিশের হাতে আটক হন অনন্য মামুন ও শ্যাম নামের তাঁর এক সহযোগী।

এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি হাইকমিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি (পলিটিক্যাল) রাইস হাসান সারোয়ার এনটিভি অনলাইনকে জানান, আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁদের এই গ্রেপ্তারের বিষয়ে কিছু জানায়নি মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ। সবার মতো তাঁরাও গণমাধ্যম থেকে এই খবর জানতে পেরেছেন।

জানা গেছে, গত ২৩ ডিসেম্বর কুয়ালালামপুরের পেট্রোনাস টুইন টাওয়ারসংলগ্ন ওয়াসমা এমসিআই হলে বিনোদনী সংস্থা ‘সিনেমাটিকে’র আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘বাংলাদেশ নাইটস’। সেখানে যোগ দিতে চিত্রপরিচালক অনন্য মামুনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ২২ ডিসেম্বর রাতে মালয়েশিয়ায় যান বাংলাদেশের একঝাঁক তারকা। অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর, আঁখি আলমগীর, এইচ এম রানা, ইউছুফ ও ব্যান্ডদল চিরকুট। গানের সঙ্গে নাচ পরিবেশন করেন চিত্রনায়ক ইমন ও নিরব এবং চিত্রনায়িকা শখ, আইরিন, ভাবনা, আমান ও মিষ্টি। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন চিত্রপরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস ও প্রবাসী সাংস্কৃতিক কর্মী আরুনিমা।

অভিযোগ উঠেছে, এই শিল্পীদলের সঙ্গেই আরো ৫৭ জনকে পাচার করেন অনন্য মামুন। যাঁদের সবাইকে গ্রেপ্তার করেছে মালয়েশিয়া পুলিশ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার হওয়া ৫৭ জন জানিয়েছেন, তাঁদের ‘শিল্পী’ হিসেবে ভিসা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল মালয়েশিয়ায়। কিন্তু সেখানে তাঁদের ভিসা ও পাসপোর্টের তথ্যে গরমিল পাওয়া যায়। কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনের সময়ই ১৫ জনকে আটক করে স্থানীয় গোয়েন্দা পুলিশ। তাঁদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে রোববার রাতে কুয়ালালামপুরের পুত্রী হোটেল থেকে আরো ১৫ জনসহ বেশ কিছু জায়গায় অভিযান চালিয়ে মোট ৫৭ জনকে আটক করা হয়। তাঁদের সঙ্গে আটক হন পরিচালক অনন্য মামুন ও মালয়েশিয়া প্রবাসী শ্যাম নামের এক বাংলাদেশি।

মালয়েশিয়া বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম রহমান পারভেজ বলেন, ‘একজন সচেতন এবং সামাজিক মানুষ হিসেবে সব সময় ভালো কাজের পাশে থাকার চেষ্টা করি। বাংলাদেশি শিল্পীদের নিয়ে পরিচালক অনন্য মামুন যখন মালয়েশিয়ায় কনসার্টের উদ্যোগ নিয়েছিলেন, তখন তাঁর পরিকল্পনাটা আমার ভালো লাগে। ফলে রসনা বিলাস তাতে স্পন্সর করে। কিন্তু কনসার্টের পর তাঁর বিরুদ্ধে আদম পাচারের যে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে এবং সেই অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তারের যে কথা শোনা যাচ্ছে তা যদি সত্যি হয়, তাহলে এটি খুবই দুঃখজনক হবে।’

একজন চিত্রপরিচালকের এই ধরনের হীন কর্মকাণ্ড মেনে নিতে কষ্ট হয় উল্লেখ করে রহমান পারভেজ বলেন, সাধারণ প্রবাসী হিসেবে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছেন তিনি। একই সঙ্গে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে সত্য উদঘাটনে বাংলাদেশ সরকার ও মালয়েশিয়া সরকারের উচ্চ পর্যায়ের আইনানুগ পদক্ষেপ কামনা করেন।

এদিকে এই ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এসব কারণে প্রবাসে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে উল্লেখ করে তাঁরা যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আশা করছেন।

বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ কমিউনিটি ক্লাব সংবাদ সম্মেলন করবে বলে জানান রহমান পারভেজ। 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement