Beta

টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সভাপতিকে মালয়েশিয়ায় সংবর্ধনা

০২ জুলাই ২০১৭, ২৩:০৪ | আপডেট: ০৩ জুলাই ২০১৭, ১৬:২৩

টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ সামসুল আলমের মালয়েশিয়া আগমন উপলক্ষে তাঁকে সংবর্ধনা দিয়েছে দেশটির বিএনপির নেতাকর্মীরা। ছবি : এনটিভি

টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ সামসুল আলমের মালয়েশিয়া আগমন উপলক্ষে সংবর্ধনা দিয়েছে দেশটির বিএনপির নেতাকর্মীরা।

রাজধানী কুয়ালালামপুরে বুকিত বিন্তানের হোটেল সলিলে আয়োজিত এই সংবর্ধনায় সভাপতিত্ব করেন মালয়েশিয়া বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার বাদলুর রহমান খান।

মালয়েশিয়া বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক এ কে এম হাবিবুর রহমান শিশির ঈদ পুনর্মিলনী, সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা পরিচালনা করেন।

টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ সামসুল আলম তোফা  প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, প্রবাসীদের অর্জিত টাকা আর চুরি হতে দেবে না বিএনপি। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদান সর্বাগ্রে। জাতীয় অর্থনীতির সিংহভাগ প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স থেকে আসে। আর সেই টাকা চুরি করে ইউরোপ আমেরিকায় পাচার করছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মাল মুহিত চুরি করা অর্থের ঘাটতি মেটাতে ট্যাক্স বেধে দেয় গরিবের গচ্ছিত টাকার ওপর। এসব আর হতে দেওয়া যায় না। বিএনপি দেশের সম্পদ লুণ্ঠনকারীদের প্রতিহত করবে। আপনাদের জান-মালের নিশ্চয়তায় অগ্রাধিকার দেবে বিএনপি।

সামসুল আলম তোফা মালয়েশিয়া বিএনপি ও তার অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনকে ধন্যবাদ জানান তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য। প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আপনাদের দেশপ্রেম দেখে আমি মুগ্ধ। দেশের বর্তমান সংকটময় মুহূর্তে আপনাদের দেশপ্রেম আমাদের আন্দোলনমুখী করে সামনে পথচলা বেগবান করবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।’

সমাপনী বক্তব্যে মালয়েশিয়ার বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার বাদলুর রহমান খান বলেন, ‘আজ আমরা যাকে সংবর্ধনা দিচ্ছি তিনি আর কেউ নন, তিনি নির্যাতিত নেতা সাবেক তথ্য উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুর ছোট ভাই তোফা ভাই, টাঙ্গাইল জেলা বিএনপি পরিবারের নক্ষত্র আজ এই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি। সস্ত্রীক মালয়েশিয়া আগমনে বিএনপি মালয়েশিয়া তাকে উষ্ণ সংবর্ধনা দিতে পেরে ধন্য।’

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন রাওয়াং বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার কামরুল হাসান। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন দলের সহসভাপতি সেলিম ভূঁইয়া, সহসাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম সোহরাব, প্রচার সম্পাদক এস এম বশির আলম, দপ্তর সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলাম (রতন), স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান রতন তালুকদার, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. জাফর, আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাহ উদ্দিন, সদস্য টিপু সুলতান, যুবদলের সহসাধারণ সম্পাদক রমজান আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মেদ হোসেন সাগর, মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম দলের সভাপতি বাদল আহমেদ, সিঙ্গাপুর শ্রমিক দলের সভাপতি এস এম পারভেজ রুবেলসহ অনেকে।

ঈদ পুনর্মিলনী ও সংবর্ধনা সভায় দোয়া পাঠ করেন কোটারায়া বাংলা মসজিদের খতিব মো. মহিউদ্দিন। সবশেষে উপস্থিত নেতাকর্মীদের  মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়। ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে কারাওকি সংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ কালচারাল সেন্টারের শিল্পীরা।

Advertisement
0.92010807991028