মুক্তিযুদ্ধের গল্প ‘বাপজানের বায়স্কোপ’

১৮ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৫:৫৬

‘বাপজানের বায়স্কোপ’ ছবির পোস্টার। ছবি : সংগৃহীত

আজ সারা দেশে মুক্তি পেয়েছে ‘বাপজানের বায়স্কোপ’ ছবিটি। কারুকাজ ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন তরুণ নির্মাতা রিয়াজুল রিজু।

ছবির গল্পে দেখা যাবে, উত্তরাধিকার সূত্রে শতাব্দী ওয়াদুদ পেয়েছেন বায়োস্কোপটি। বারোয়ারি আয়োজনে সুর করে পুঁথি পাঠ করেন শতাব্দী। পুঁথির কথায় উঠে আসে মুক্তিযুদ্ধ।
ছবিটি প্রসঙ্গে পরিচালক রিয়াজুল রিজু বলেন, ‘ছবিটি নিয়ে অনেক প্রশংসা শুনেছি। সবার আগ্রহ আমাকে নতুন করে শক্তি দিয়েছে। কিন্তু ছবিটি মুক্তি দিতে গিয়ে দেখি আরেক চিত্র। সিনেমা হলের মালিকদের আগ্রহ নেই এ ধরনের চলচ্চিত্রের প্রতি। আসলে সিনেমার মুক্তি নিয়ে অনেক জটিলতা পার হতে হয়েছে আমাকে। কারণ, এটি তথাকথিত বাণিজ্যিক ঘরানার ছবি নয়। তার ওপর অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীরা প্রায় কেউই মূলধারার চলচ্চিত্রের নয়। তবে বিজয়ের মাস হওয়ায় সিনেমাটি মুক্তি দিতে পেরেছি সহজে। ছবিটি মুক্তিযুদ্ধকে উপজীব্য করে নির্মিত এক অসাধারণ প্রেমের গল্প। আশা করি, সাধারণ দর্শকের ছবিটি ভালো লাগবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রদর্শক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিয়া আলাউদ্দিন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, “‘বাপজানের বায়স্কোপ’ ছবিটা ভালো হয়েছে। অনেক জায়গায় এ ছবির প্রশংসা শুনেছি। আমরাও হলে ছবিটা চালাতে চাই। কিন্তু এ ধরনের ছবি যে ধরনের দর্শক দেখে, তারা ভালো পরিবেশ না পেলে হলে আসে না। আর আমাদের হলের যে পরিবেশ, তাতে আমরা এই ছবি চালালে চলবে না। সিনেমা হলের গরম, ছারপোকার কামড়, ভাঙা সিটের মধ্যে বসে যারা ছবি দেখে, তারা অ্যাকশন, রোমান্টিক ছবি দেখতে চায়। ভালো ছবি তারা বোঝে না।”
মাসুম রেজা, আমিরুল ইসলাম, অয়ন চৌধুরী ও মাসুদ মহিউদ্দিনের চিত্রনাট্যে চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, শতাব্দী ওয়াদুদ, সানজিদা তন্ময়, মৌটুসী, মাসুদ মহিউদ্দিনসহ আরো অনেকে।

ছবিটির সংগীতায়োজন করেছেন এস আই টুটুল, সেতু চৌধুরী ও অমিত মল্লিক। কণ্ঠ দিয়েছেন চন্দনা মজুমদার, এস আই টুটুল, শিমুল খান, মাসুদ মহিউদ্দিন, অমিত মল্লিক ও ফকির জহির উদ্দীন।

 

ক্যাপশন : ‘বাপজানের বায়স্কোপ’ ছবির পোস্টার। ছবি : সংগৃহীত